মূল বিষয়বস্তুতে যান

G&RLeaderboardAd

LeadLine


আপনি এখানে

Contenttopcol1-1

অধিনায়ক ও সহ-অধিনায়কের পদ থেকে সরিয়ে দেয়া হলো সাকিব ও তামিমকে

সোম, 09/05/2011 - 23:48

স্পোর্টস ডেস্ক

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ও সহ-অধিনায়ক তামিম ইকবালকে তাদের নিজ নিজ পদ থেকে সরিয়ে দিয়েছে ক্রিকেট বোর্ড। আজ বিকেলে এ তথ্য দেন ক্রিকেট বোর্ডের মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস।

মূলত জিম্বাবুয়ে সফরে ব্যর্থতা ও আইন-শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে অধিনায়কের পদ থেকে সাকিব আল হাসানকে সরিয়ে দেয় ক্রিকেট বোর্ড। শুধু এখানেই থেমে থাকেনি বোর্ড। সহ-অধিনায়ক তামিম ইকবালকেও এই দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়েছে বিসিবি।

বাংলাদেশের ষষ্ঠ অধিনায়ক হিসেবে ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে বাংলাদেশ দলের দায়িত্ব দেয়া হয় দেশ সেরা পেসার মাশরাফি বিন মর্তুজাকে। কিন্তু মাশরাফি ইনজুরিতে পড়লে দলের দায়িত্ব বর্তায় অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের কাঁধে। এরপর ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক হিসেবে বেশ কয়েকটি সিরিজও পার করে দেন সাকিব। এরই মধ্যে দরজায় কড়া নাড়তে থাকে বিশ্বকাপ। তাই বিশ্বকাপকে সামনে রেখে ২০১০ সালের ডিসেম্বরে পুরোপুরিভাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অধিনায়ক ও সহ-অধিনায়কের দায়িত্ব দেয়া হয় সাকিব আর হাসান ও তামিম ইকবালকে। কিন্তু বিশ্বকাপের আগ থেকে দলের মধ্যে কোন্দল সৃষ্টি এবং তখনকার কোচ জেমি সিডন্সের সাথে সুর মিলিয়ে দলের সিনিয়র খেলোয়াড়দের সাথে অসদাচরণ খুব ব্যতিব্যস্ত হয়ে পড়েন বাংলাদেশের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। তার প্রভাব ড্রেসিং রুমে পড়লে, বাস্তবে ফুটে উঠেনি সাকিব-সিডন্সের ক্যারিশমার। এরই মধ্যে পারও হয়ে যায় বিশ্বকাপ, তবে দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠতে না পারার ব্যর্থতা ধামাচাপা পড়ে যায় লিগ ম্যাচে তিনটি জয়ে। বিশ্বকাপের পর সিডন্সের বিদায়ের পরও, দলের মধ্যে নিজেদের কর্তৃত্ব চালিয়ে যান সাকিব-তামিম। নিজেদের অবস্থানকে সুসংহত করার লক্ষ্যে দলের মধ্যে সাব-গ্রুপ তৈরি করে ফেলেন তারা।

এরপর জিম্বাবুয়ে সফরের জন্য প্রধান নির্বাচক আকরাম খান তার দুই সহযোগী মিনহাজুল আবেদীন নান্নু ও হাবিবুল বাশার সুমনকে নিয়ে সাকিবকে জানিয়ে দল ঠিক করলেও, কাউন্টি সফর শেষে ফিরে এসে তা অস্বীকার করেন সাকিব। আর ঐ সফরে জিম্বাবুয়ের কাছে একমাত্র টেস্টে যাচ্ছেতাইভাবে হারের পর, ওয়ানডে সিরিজও হারে বাংলাদেশ।

তাই টনক নড়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের। জিম্বাবুয়ে সফরে ব্যর্থতার জন্য দলের ম্যানেজার ও নির্বাচকদের প্রতিবেদনের ভিত্তিতে অধিনায়ক সাকিব ও তার ডেপুটি তামিমকে অব্যাহিত দেয়া হয়েছে বলে জানান মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস। এছাড়া যারা ঐ সফরে শৃঙ্খলা ভঙ্গ করেছেন, তাদের বিরুদ্ধেও নেয়া হবে ব্যবস্থা।

তবে আসছে অক্টোবরে দেশের মাটিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে কাকে দলের দায়িত্ব দেয়া হবে তা এখনো নিশ্চিত করে বলা হয় নি। এ সিরিজের জন্য আগামী ৮ সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশ দলের অনুশীলন শুরু হবার কথা রয়েছে।

শ্রেণীবিভাগ: 

HighlightBottom1

Premium Drupal Themes by Adaptivethemes