আফরোজা আক্তার রিবার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে পদায়ন

4357
আফরোজা আক্তার রিবা
দোহার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আফরোজা আক্তার রিবার পদোন্নতি

দোহার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আফরোজা আক্তার রিবা। যিনি দীর্ঘ সময় দোহার উপজেলার একজন নিবেদিতপ্রাণ হিসেবে  আত্মপ্রকাশ করেছিলেন। গাজীপুর জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (এডিসি) হিসেবে পদোন্নতি পেয়েছেন অষ্টগ্রামের আব্দুল্লাহপুর ইউনিয়নের কলিমপুর গ্রামের সেই আফরোজা আক্তার রিবা।

গত বৃহস্পতিবার (জুন ৪) রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারি সচিব এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করেন। আফরোজা আক্তার রিবা এর আগে ঢাকা জেলার শ্রেষ্ঠ ইউএনও নির্বাচিত হয়েছেন।

২০১৮ সালের ৫ই মার্চ দোহার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে যোগদান করেন। দোহার উপজেলায় প্রথম কোনো নারী কর্মকর্তা হিসেবে এই পদে যোগদান করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী আফরোজা আক্তার রিবা ২০০০ সালে এসএসসি ও ২০০২ সালে এইচএসসি পরীক্ষা শেষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন বিভাগে ভর্তি হন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা শেষ করে ২৯তম বিসিএস-এর মাধ্যমে সরকারি চাকরিতে যোগদান করেন। দোহারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে যোগদানের পূর্বে তিনি ভূমি কর্মকর্তা, জেলা প্রশাসনে সহকারি কমিশনার সহ নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট হিসেবে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন।

দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকে উপজেলা প্রশাসনিক চিত্র পাল্টে যেতে থাকে। প্রশাসনের সুষ্ঠ তত্ত্বাবধান ও উপজেলার উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখে আসছেন তিনি।

তিনি যোগদানের পর, ইউএনও মেধাবৃত্তি, শেখ রাসেল প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা, বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ড ফুটবল টুর্নামেন্ট চালু করেন। বাল্যবিয়ে বন্ধ, মেয়েদের যৌন নির্যাতন বন্ধ, মাদকসেবীদের ভ্রাম্যমাণ দণ্ড ও সর্বশেষ করোনা সংকটকালে দোহারকে একজন মায়ের মত আগলে রেখেছ উপজেলাবাসীর মন জয় করে নিয়েছেন তিনি।

বিশেষ করে ইলিশ সংরক্ষণে নিয়মিত নদীতে টহল, জেলেদের বিভিন্ন দন্ড ও মাছ শিকারী সিন্ডিকেট উৎখাতে তিনি অবিস্মরণীয় ভূমিকা পালন করেন।

নদীভাঙন পরিবারের পাশেও ছিলেন তিনি। আশ্রায়ন প্রকল্পে নিয়মিত সহায়তা, বস্ত্র বিতরণসহ শিক্ষাক্ষেত্রে নানা পদক্ষেপেও তার ভূমিকা অপরিসীম।

আপনার মতামত দিন