দেশের অর্থনৈতিক সংকট সমাধানে শেখ হাসিনাকে আবার দরকার: আলমগীর হোসেন

29

ঢাকার ক তালিকাভুক্ত পৌরসভা, দোহার পৌরসভার ২০২৩-২০২৪ অর্থ বছরের বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। বুধবার দোহার পৌরসভা সালমান এফ রহমান অডিটোরিয়াম সভাকক্ষে ৪৪ কোটি ১৫ লক্ষ টাকার ২৫তম এ বাজেট ঘোষণা করেন নবনির্বাচিত পৌর মেয়র আলমাছ উদ্দিন। বাজেটে ঘাটতি প্রায় ২৯ কোটি টাকা। ঘাটতি মোকাবেলায় সরকারি বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে।

এসময় দোহার পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র আলমাছ উদ্দিনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দোহার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও দোহার প্রেসক্লাবের উপদেষ্টা মো.আলমগীর হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দোহার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোবাশ্বের আলম এবং দোহার থানা অফিসার ইনচার্জ মো মোস্তফা কামাল।

এ সময় আলমগীর হোসেন বলেন, পৌরসভার সবচেয়ে বড় সমস্যা হল জনগন পৌর কর দেয় না। যার জন্য পৌরসভার উন্নয়ন করা সম্ভব কম হয়েছে। তবে এবার আমাদের এমপি মহোদয় সালমান এফ রহমান তিনি নিজে এই পৌরসভার উন্নয়নের দিকে নজর দিয়েছেন। তার সহায়তায় দোহার পৌরসভা এগিয়ে যাবে। এ বাজেটে কোনো কর বৃদ্ধি করা হয়নি।

তিনি আরো বলেন, সামনে জাতীয় নির্বাচন এই নির্বাচনে আবারও শেখ হাসিনাকে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বানাতে হবে। তিনি ছাড়া বাংলাদেশের এই অর্থনৈতিকের সমাধান হবে না। অন্য কোন সরকার আসলেও বাংলাদেশের হাল ধরতে পারবে না। তাই সাধারণ জনগণের কাছে দাবি আপনারা আগামী নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জয়যুক্ত করবেন।

অন্য খবর  দোহারে ৩ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ সম্পন্ন

দোহার পৌরসভার তথ্যমতে, নিজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধার্য্য করা হয়েছে ৯ কোটি ১৪ লক্ষ টাকা। তারমধ্যে হোল্ডিং ট্যাক্স বাবদ ৩ কোটি ৫ লক্ষ টাকা এবং পরোক্ষ কর বাবদ ৬ কোটি ৯ লক্ষ টাকা। রাজস্ব ব্যয়ের লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৯ কোটি ৪৩ লক্ষ টাকা। তন্মধ্যে সাধারণ সংস্থাপন খাতে ব্যয় ৪ কোটি ২০ লক্ষ টাকা। শিক্ষা, সংস্কৃতি ও খেলাধুলা খাতে ব্যয় ১২.৫০ লক্ষ টাকা, জনস্বাস্থ্য খাতে ১১.৫০ লক্ষ, পরিবেশ ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা খাতে ১ কোটি ৩৮ লক্ষ টাকা, সামাজিক নিরাপত্তা খাতে ২২.৪০ লক্ষ টাকা, জাতীয় দিবস ও ধর্মীয় অনুষ্ঠান খাতে ৮.৫০ লক্ষ টাকা,যানবাহন আসবাবপত্র খাতে ব্যয় ১ কোটি ৪১ লক্ষ টাকা, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও জরুরী ত্রাণ খাতে ১০ লক্ষ টাকা, ভ্যাট পরিশোধ খাতে ১৪.৭৫ লক্ষ টাকা, আয়কর পরিশোধ খাতে ১৫ লক্ষ, উন্নয়ন খাতের ঋণ পরিশোধ খাতে ১৫ লক্ষ, রাজস্ব উন্নয়ন খাতে ১ কোটি ২০ লক্ষ টাকা।

মোট উন্নয়ন ব্যয়ের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৩২ কোটি ৬০ লক্ষ টাকা। এর মধ্যে রাস্তা উন্নয়ন খাতে ১৫ কোটি ৬৫ লক্ষ, ড্রেন উন্নয়ন খাতে ৯ কোটি ৯৫ লক্ষ, স্ট্রীট লাইট খাতে ২০ লক্ষ, পৌর ভবন নির্মাণ ও মেরামত প্রকল্পে ব্যয় ৫০ লক্ষ, লোকাল গভার্নমেন্ট কভিড-১৯ রেন্সপন্স এন্ড রিকভারি প্রকল্পে ব্যয় ১ কোটি ৪০ লক্ষ টাকা, পার্ক নির্মান প্রকল্পে ব্যয় ২ কোটি টাকা রাজস্ব ও উন্নয়ন মিলে সর্বমোট ব্যয়ের লক্ষ্য নির্ধারন করা হয়েছে ৪২ কোটি ২ লক্ষ টাকা।

অন্য খবর  দোহারের মৈনটঘাট থেকে তিন হাজার পিস ইয়াবাসহ এক জন আটক

বাজেটে সরকারের উন্নয়ন সহায়তা তহবিল হতে ১ কোটি ৮১ লক্ষ টাকা, লোকাল গভার্নমেন্ট কভিড-১৯ রেসপন্স এন্ড রিকভারি প্রকল্পে বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে ১কোটি ৪০ লক্ষ টাকা, গুরুত্বপূর্ণ নগর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প থেকে ২ কোটি ৫০ লক্ষ টাকা, পৌর এলাকায় সৌর বিদ্যুতায়িত সড়ক বাতি স্থাপন প্রকল্পে বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে ২ কোটি টাকা, পার্ক নির্মান প্রকল্পে বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে ২ কোটি টাকা এবং দোহার পৌরসভা উন্নয়ন প্রকল্পে বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে ২০ কোটি টাকা বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে।

পৌর সচিব নাসরিন জাহানের সঞ্চালনায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, দোহার উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোঃ মোবাশ্বের আলম, দোহার থানা তদন্ত কর্মকর্তা আজহারুল হক,কাউন্সিলর ও মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থীগণ, সাংবাদিকবৃন্দ এবং পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দসহ অনেকে।

আপনার মতামত দিন