চলে গেলেন সুর সম্রাজ্ঞী লতা মঙ্গেশকর; ভারতে দুই দিনের শোক

77
লতা মঙ্গেশকর

এক মাস চিকিৎসাধীন থাকার পর অবশেষে না ফেরার দেশে চলে গেলেন উপমহাদেশের কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী লতা মঙ্গেশকর। রবিবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে মুম্বাইয়ের ব্রিচ ক্যান্ডি হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯২ বছর। লতা মঙ্গেশকরের মৃত্যুতে ভারতে দুই দিনের শোক ঘোষনা করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার।
গণমাধ্যমকে মুম্বাইয়ের ব্রিচ ক্যান্ডি হাসপাতালের চিকিত্সক প্রতীত সামধানি জানান, ‘মাল্টি অর্গ্যান ফেলিউরের জেরে মৃত্যু হয়েছে লতা মঙ্গেশকরের। আপতত তার মরদেহ শিবাজি পার্কে নিয়ে যাওয়ার আয়োজন করছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সেখানেই শেষশ্রদ্ধা জানানো হবে সুর সম্রাজ্ঞীকে।
গত ৮ জানুয়ারি ব্রিচ ক্যান্ডি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন লতা। সম্প্রতি তিনি করোনামুক্ত হন, সঙ্গে নিউমোনিয়াও ছিল। অধিকাংশ সময়ই ছিলেন আইসিইউতে। শারীরিক অবস্থার উন্নতি হওয়ায় সম্প্রতি তাকে কেবিনে নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু শনিবার ফের বিগড়ে যায় শিল্পীর শারীরিক পরিস্থিতি। ফলে আবারও তাকে আইসিউতে নেওয়া হয়েছিল। সেখান থেকেই চলে গেলেন আপন ঠিকানা। তবে গায়িকার মৃত্যু হয়েছে কোভিড পরবর্তী জটিলতায়।
১৯২৯ সালে ইন্দোরে জন্মগ্রহণ করেছিলেন লতা। সংগীত জগতের অবিসংবাদী সম্রাজ্ঞী হওয়ার আগে শিশু অভিনেতা হিসেবে ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ শুরু করেছিলেন এই প্রবাদপ্রতিম শিল্পী। ১৯৪২ সালে একটি মারাঠি ছবির সৌজন্যে প্রথম গান রেকর্ড করেন তিনি। এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। লতার সুরেলা কণ্ঠের জাদুতে বুঁদ প্রজন্মের পর প্রজন্ম।
৭০ বছরের দীর্ঘ ক্যারিয়ারে ৩০ হাজারেরও বেশি গান রেকর্ড করেছেন লতা মঙ্গেশকর। ২০০১ সালে তাকে ভারতের সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান ভারত রত্নে ভূষিত করা হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন সময়ে পেয়েছেন নামিদামি অসংখ্য পুরস্কার।
কিংবদন্তি শিল্পী লতা মঙ্গেশকরের মৃত্যুতে দুই দিনের জাতীয় শোক ঘোষণা করেছে ভারত সরকার। সুরসম্রাজ্ঞীর মৃত্যুতে শোকে স্তব্ধ হয়ে পড়েছে গোটা ভারত। তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও।
রবিবার সরকারি সূত্রের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএনআই জানায়, লতা মঙ্গেশকরের স্মরণে ভারতে দুই দিনের জাতীয় শোক পালন করা হবে। তার সম্মান হিসেবে এই সময় জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হবে।
দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের খবরে বলা হয়, রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ লতা মঙ্গেশকরের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন। তিনি টুইটে লেখেন, ‘ভারতরত্ন লতা মঙ্গেশকরের প্রয়াণে শোকাহত গোটা দেশ। লতাজির কৃতিত্ব অতুলনীয় থাকবে।’
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তার শোকবার্তায় লিখেছেন, `লতা দিদির কাছ থেকে সবসময় অগাধ স্নেহ পেয়েছি। এটাকে আমি আমার সম্মান বলে মনে করি। তার সঙ্গে আমার সব স্মৃতি অবিস্মরণীয় থাকবে। লতা দিদির প্রয়াণে গোটা ভারতবাসীর পাশাপাশি আমিও শোকাহত। তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেছি। সমবেদনা জানিয়েছি। ওম শান্তি।’
রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, প্রতিরক্ষামন্ত্রী থেকে শুরু করে একের পর এক বিশিষ্টজনেরা টুইটে শোকজ্ঞাপন করেছেন।
এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। এক শোকবার্তায় বাংলাদেশের সরকারপ্রধান বলেন, এই সুরসম্রাজ্ঞীর মৃত্যুতে উপমহাদেশের সঙ্গীতাঙ্গনে এক বিশাল শূন্যতার সৃষ্টি হলো। তিনি আরও উল্লেখ করেন, লতা মঙ্গেশকর তার কর্মের মধ্য দিয়ে চিরদিন এ অঞ্চলের মানুষের হৃদয়ে বেঁচে থাকবেন।
রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদও পৃথক শোকবার্তায় তার আত্মার শান্তি কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

অন্য খবর  জর্ডানের বাদশাহকে ক্ষমতাচ্যুত করার ষড়যন্ত্রের অভিযোগে সাবেক যুবরাজ আটক

মন্তব্য