আমেরিকা যা চায় আওয়ামী লীগও তাই চায়: সালমান এফ রহমান

79

শরিফ হাসান, স্টাফ রিপোর্টার, (news39.net: আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-১ আসনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রার্থী সালমান ফজলুর রহমান নির্বাচনী প্রচারণা সভায় বলেন, নির্বাচন নিয়ে অনেক ষড়যন্ত্র হচ্ছে। বিএনপি ও জামায়াত বলেছিল যে নির্বাচন হবে না। কিন্তু এখন নির্বাচন চলে এসেছে। আসলে, বিএনপি জনসমর্থন হারিয়েছে।

তিনি বলেন, আমি গত কয়েকদিন আগে আমেরিকার রাজধানীতে গিয়েছিলাম। তখন আমেরিকার মন্ত্রীদের সাথে দেখা হয়েছে। তখন তারা তিনটি বিষয় বলেছে। প্রথমত: বাংলাদেশে অবাক সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন হওয়া উচিত। আমি বলেছি সেটা আমাদেরও চাওয়া এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও চান। শেখ হাসিনা জনগণের জন্য কাজ করেছেন তাই তিনি আশা করেন জনগণ তাকে ভোট দিয়ে পুনরায় আবার জয়যুক্ত করে প্রধানমন্ত্রী বানাবেন। দ্বিতীয়ত: কথা ছিল তাদের বাংলাদেশের নির্বাচন শান্তিপূর্ণ হওয়া। তখন আমি বললাম যে শান্তিপূর্ণ গ্যারান্টি আমি দিতে পারবো না কারণ নির্বাচনের সময় কিছু না কিছু মারামারি ঘটনা ঘটে থাকে। তবে, কেউ যদি অশান্তি করার চেষ্টা করে, তখন আমরা ব্যবস্থা নিতে পারব। তৃতীয়ত: যে নির্বাচনটা অংশগ্রহণমূলক হতে হবে। তখন আমি বললাম অংশগ্রহণ মূলক নির্বাচন বলতে কি তোমরা বলতে চাও বিএনপিকে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে হবে? তখন তারা বলল যে না আমরা কখনোই একথা বলি নাই, বিএনপি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে কিনা সেটা তাদের ব্যাপার। আমরা চাই নির্বাচনে একটি অনুকূল পরিবেশ করে দিবো যেন বাংলাদেশের জনগণ ভোটে অংশগ্রহন করতে পারে।

অন্য খবর  অপ্রাপ্ত বয়সে মোটরসাইকেল চালালেই কঠোর ব্যবস্থা: সাজ্জাদ হোসেন

গ্যাস লাইনের বিষয় সালমান এফ রহমান বলেন, প্রথমে কেরানীগঞ্জ থেকে নবাবগঞ্জ ও দোহারে গ্যাস লাইন আসবে। কিন্তু আমি চিন্তা করলাম যে কেরানীগঞ্জ হয়ে আসতে আসতে নবাবগঞ্জ ও দোহারে গ্যাসের চাপ কমে যাবে। সেজন্য আমি সরাসরি নবাবগঞ্জে গ্যাস লাইনের প্রকল্প পাশ করালাম পরে সেখান থেকে গ্যাস দোহারে আসবে। আর তখন গ্যাসের চাপ বেশী থাকায় নবাবগঞ্জ ও দোহারবাসী সুবিধা বেশী পাবে। আমি নির্বাচনের সময় যত কথা দিয়েছি তারমধ্যে বেশিরভাগ কাজ হয়ে গিছে এবং কিছু কাজ চলমান রয়েছে। তাই কাজগুলো শেষ করতে হলে আমাকে ও শেখ হাসিনাকে আবার নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবেন।

তিনি আরো বলেন, নবাবগঞ্জ ও দোহার হবে অর্থনৈতিক অঞ্চল। এখানে হাইটেক পার্ক হবে অর্থনৈতিক জোন হবে। আর এই জন্য আমি তাদেরকে শর্ত দিয়ে বলেছি যে, যারা এখানে অর্থনৈতিক জোন তৈরি করবেন তারা যাতে দোহার ও নবাবগঞ্জ এর লোকদের কাজ দেন। অর্থাৎ এখানে দোহার নবাবগঞ্জ উপজেলার জনগণের কর্মসংস্থান হবে।

দোহার উপজেলার বিলাশপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও বিলাশপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রাশেদ চোকদারের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, দোহার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও দোহার উপজেলার আওয়ামী লীগের সভাপতি আলমগীর হোসেন, দোহার উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শামীমা ইসলাম বৃিথী,আলী আহসান খোকন শিকদার,ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আরমান হোসেন অপু,আনার কলি পুতুল,দোহার উপজেলার সেচ্ছাসেবকলীগের আহ্বায়ক বাশার চোকদারসহ বিলাশপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সকল নেতাকর্মী।

আপনার মতামত দিন