অজ্ঞানপার্টির কাছে ফসল বেঁচা টাকা খোয়ালেন তিন কৃষক

453

স্টাফ রিপোর্টার, নিউজ৩৯.নেট ♦ সোমবার রাত নয়টা, সারাদিন জমিতে কাজ করে স্বপ্নের ফসল সাত ঝাঁকা করলা বোঝাই করে ঢাকা কারওয়ান বাজারে যান তিন কৃষক, টুলু, জহিরুল ও সহিদুল। ভালই দাম পান তারা। পরদিন খুশি মনে বাড়ী ফিরছিলেন এই তিন জন। সাথে ছিল বাচ্চাদের জন্য শীতের পোষাক, জুতা, মোজাঁ এবং সংসারের জন্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র। ৩কৃষক

কিন্তু ভাগ্যের কি নির্মম পরিহাস, পরদিন সকালে ঢাকা থেকে বাড়ীতে ফিরছিলেন তখন আনুমানিক সকাল (মঙ্গলবার) আটটার দিকে অজ্ঞান পার্টির ক্ষপ্পরে পড়ে প্রায় ত্রিশ হাজার টাকা তাদের কাছ খোয়ান।

পড়ে ঐ তিন ব্যক্তিকে অজ্ঞান অবস্থায় জয়পাড়ার আরাম বাস কাউন্টারে পাওয়া যায়। বাসের কর্মীরা জানান ধলেশ্বরী ব্রীজ পার হবার পর কয়েকজন যাত্রী নেমে যান, সন্দেহ তারাই অজ্ঞান পার্টির সদস্য। 

নিউজ৩৯-এর সাংবাদিক কামরুজ্জামান টুটুল বাস স্ট্যান্ডে তাদের এই অবস্থায় পেয়ে বেলা সাড়ে এগারটার দিকে দোহার উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করান। অজ্ঞান তিন কৃষকের পরিবারের কাছ থেকে জানা যায় যে টুলু এবং জহিরুল শ্রীনগর থানার মক্ত গ্রামের অপর কৃষক শহিদুল একই থানার আরদিপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

অন্য খবর  ঢাকা - ১ আসনে গতবারের তুলনায় ভোটার বেড়েছে ৬১৪১৭ জন

অজ্ঞান অবস্থায় তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও দোহার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত নার্স এবং কর্মকর্তাদের ব্যবহার ছিল অমানবিক। তারা ন্যূনতম সাহায্য করার জন্য এগিয়ে আসেন নি।

এই শীতে তারা এই লোকদের সামান্য একটা কম্বল ও বিছানা দিতে অপারগতা প্রকাশ করে। পরে তারা ফ্লোরে একজন এবং অপর দু’জনকে একই সীটে থাকার ব্যবস্থা করে দেন। বিছানাটি ছিল পুরানো রোগীদের ব্যবহৃত নোংড়া বিছানা।

আপনার মতামত দিন