মিজানুর রহমান শমসেরীর ছড়া

232

অবৈধ ইচ্ছে

 

ইচ্ছে করেই ওরা আমায় মারতে আসে ঐ

অনিচ্ছাতে এখন আমি পালিয়ে যাবো কই?

ইচ্ছে করেই ওরা আমায় দিচ্ছে বহুত গাল

ইচ্ছে করে ওরা আমার ভাঙছে ভাতের থাল।

ইচ্ছে করেই ওরা আমার টানছে ঘরের খুঁটি

ইচ্ছে করে ওরা আমার নিচ্ছে সকল লুটি।

ইচ্ছে ওদের আমার ঘাড়ে থাকবে ওরা চেপে

মুছিয়ে দিবে মিষ্টি হাসি চুনকালিতে লেপে।

ইচ্ছে করেই ওদের সাথে মিষ্টি কথা কই

ইচ্ছে করে তবু ওরা মারতে আসে ঐ।

 

খাজনাপাতি 

 

পাট কেটেছি ক’দিন হলো, মাত্র ক’টা দিন-

খাজনাপাতি সবই দেবো, সবুর করে নিন।

আজো জমির ধান পাকে নি, চাল-ডাল নেই ঘরে

পাঁচ বছরের কচি মেয়ে ভুগছে কালা জ্বরে।

কৃষানি আজ ক’দিন হলো খায় নি কিছু ভাই

হালের বলদ গেছে মারা, কাঁদছে শুধু তাই।

কলা দিয়ে জাউ রেঁধেছি, মরিচ বেটেছি

এই কটা দিন এমনি করে চালিয়ে যেতেছি।

উলুর পাকে ঘুরছে মাথা, খাটছি সারা দিন

খাজনাপাতি সবই দেবো, সবুর করে নিন।

 

 

দুর্ভিক্ষের ছড়া

 

গল্প শোনো ছোট্ট খুকু, গল্প শুনে হাসতে মানা

ক্ষুধার দেশে খোদার মানুষ ক’দিন হলো খায় নি খানা।

থাকার ঘরের চাল ভেঙেছে, গাছতলাতে বাসা

ভুলেই গেছে দেশের মানুষ মিষ্টি করে হাসা।

পায় নি মানুষ খাবার খেতে একটা রুটি, একটু ডাল

মরছে মানুষ জঠর-জ্বালায়, চাল-বাজারে নেই যে চাল।

দেশের রাজা টানছে গাঁজা, ছড়ান কথার বুলি

রাজপুতনার মোটর গাড়ি উড়ায় পথের ধূলি।

যে দেশে লোক ভাত না পেয়ে পথে-ঘাটে জীবন খোয়ায়

ঠিক সে দেশের রাজপুতেরা প্যারিস থেকে কাপড় ধোয়ায়।

Comments

comments