১৪ দলীয় জোটের সাথে ব্যাঃ নাজমুল হুদার সংহতি

770

আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোটের সকল কর্মসূচিতে সংহতি প্রকাশসহ সক্রিয়ভাবে অংশ গ্রহণ করবে ব্যারিস্টার নাজমুল হুদার বাংলাদেশ ন্যাশনাল অ্যালায়েন্স (বিএনএ) জোট। সোমবার বিকেলে ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে ১৪ দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের সাথে বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম এ কথা জানান।

dn 11

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ১৪ দলের লক্ষ্য শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়া। এজন্য আমরা ধারাবাহিক পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করছি। নাজমুল হুদার নেতৃত্বে বিএনএ জোটের সাথে যে মতবিনিময় শুরু হলো তা অব্যাহত থাকবে। পাশাপাশি অন্যান্য অসাম্প্রদায়িক দলগুলোর সঙ্গেও পর্যায়ক্রমে মতবিনিময় করবে ১৪ দল।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আহবানে সাড়া দিয়ে নাজমুল হুদা কেন্দ্রীয় ১৪ দলীয় জোটের সকল কর্মসূচিতে সংহতি প্রকাশ করবেন এবং ১৯ তারিখের মানবন্ধন কর্মসূচিতে তারা অংশ গ্রহণ করবে।

আনুষ্ঠানিকভাবে ১৪ দলে যোগ দিচ্ছেন কিনা, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে নাজমুল হুদা বলেন, যোগ দিচ্ছি না। তবে তাদের চলমান সন্ত্রাস-হত্যাবিরোধী কর্মসূচিতে আমাদের অংশগ্রহণ থাকবে। তিনি বলেন, সন্ত্রাস দমনে রাজনীতির কোনো সুযোগ নেই। এজন্য জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে পদক্ষেপ নিচ্ছেন তাকে আমরা পূর্ণ সমর্থন করি। রাস্তার রাজনীতি শেষ। এখন আর রাজপথে মারামারি, হানাহানি, সন্ত্রাস, অহেতুক ধর্মঘট নেই। একটা শান্তিময় পরিবেশ বিরাজ করছে।

অন্য খবর  দোহারে ছাত্রলীগের ডেঙ্গু ও এডিস মশা নিধনে অভিযান

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী এসব সন্ত্রাস বন্ধ করতে পেরেছেন এজন্য তাকে ধন্যবাদ। তিনি বলেন, আজকে তারা বিভিন্ন সন্ত্রাসী কার্যকলাপ করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চায়। ইসরায়েল ও মোসাদের সঙ্গে বৈঠক করে সরকার পতনের চক্রান্ত করছে। এজন্য যদি আমরা ১৪-দলীয় জোটকে শক্তিশালী করি, তবে প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করা হবে।

এর আগে বিকাল পৌনে ৪টার দিকে ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা ধানমন্ডি কার্যালয়ে যান। আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক অসীম কুমার উকিল তাকে স্বাগত জানান। এ সময় গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে, নাজমুল হুদা আনুষ্ঠানিকভাবে ১৪ দলে যোগ দিচ্ছেন।

এর আগে ১৪ দল নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন বিএনএ নেতারা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের মাহবুব-উল আলম হানিফ, দীপু মনি, জাহাঙ্গীর কবির নানক, ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, বদিউজ্জামান ভুইয়া ডাবলু, জাসদের একাংশের শিরিন আখতার, অপর অংশের সভাপতি শরিফ নুরুল আম্বিয়া, ওয়ার্কার্স পার্টির ফজলে হোসেন বাদশা, জেপির শেখ শহীদুল ইসলাম, গণতন্ত্রী পার্টির ডা. শহিদুল্লাহ সিকদার, ডা. শাহাদাৎ হোসেন, ন্যাপের ইসমাইল হোসেন প্রমুখ।

আপনার মতামত দিন