শীতের আগমনী বার্তা দেখা যাচ্ছে গ্রামে

সবে মাত্র হেমন্ত শুরু হয়েছে। বাংলা ১৪২৮ সনের কার্তিক মাসের প্রথম সপ্তাহ পাড় হয়ে তিন দিন গত হলো। এর মধ্যেই গ্রামে শীত পড়তে শুরু করেছে। বিকালে ও সকালে দেখা যাচ্ছে হালকা কুয়াশা।

106

সবে মাত্র হেমন্ত শুরু হয়েছে। বাংলা ১৪২৮ সনের কার্তিক মাসের প্রথম সপ্তাহ পাড় হয়ে তিন দিন গত হলো। এর মধ্যেই গ্রামে শীত পড়তে শুরু করেছে। বিকালে ও সকালে দেখা যাচ্ছে হালকা কুয়াশা। শিশির ভেজা ঘাসে সূর্যের আলো পড়ে শীতের সৌন্দর্য ফুটিয়ে তুলেছে। যদিও ছয় ঋতুর শীত এখনো শুরু হতে দুই মাস বাকি। ইতোমধ্যে গ্রামের বাজারে শীতকালীন সবজি উঠতে শুরু করেছে। বাড়তি দামের আশায় কৃষক আগাম চাষ করে থাকে শীতকালীন সবজি। চাহিদা অনুযায়ী দামও থাকে বেশি। সকালের লাল সূর্য চমৎকার দৃশ্য তৈরি করছে। শীত প্রেমী মানুষের যেন আনন্দের সময় চলে এসেছে। কিন্তু শীত আগমনের প্রথম দিকে সবাইকে থাকতে হবে শতর্ক হয়ে। এসময় নানা ধরনের রোগ দেখা দিতে পারে। হালকা ঠান্ডা বাতাসে হতে পারে জটিল কিছু রোগ। শিশুদের রাখতে হবে একটু যত্ন সহকারে। ইবনে সিনা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ মোঃ শফিকুল ইসলাম নিউজ৩৯.নেট’কে জানান, শীতের প্রাথমিক এই সময়ে শিশুদের সকালে ৮ টার আগে ও সন্ধার পর বাহিরে যাওয়া উচিত হবে না। এসময় এলার্জি, সর্দি, কাশি হতে পারে। বড়দের ক্ষেত্রেও সাবধানে চলাচল করার পরামর্শ দেন তিনি। কেউ আক্রান্ত হলে সকালে ও সন্ধার পর হালকা গরম পানি ব্যবহার ও পান করা যেতে পারে বলে জানান এই বিশেষজ্ঞ। তবে অন্য সময় স্বাভাবিক খাবার খেতে কোন বাধা নেই।

অন্য খবর  ঢাকা জেলা সিভিল সার্জনের সাংবাদিক সম্মেলন

মন্তব্য