নিখোঁজ সাবমেরিনটির যাত্রীদের হাতে আছে ৩০ ঘণ্টারও কম সময়

38

বিবিসি

প্রকাশ: ২১ জুন ২০২৩, ১১: ৩৭

নিখোঁজ হওয়া পর্যটক সাবমেরিনটির খোঁজে আটলান্টিক মহাসাগরে প্রায় ২০ হাজার বর্গকিলোমিটার জায়গাজুড়ে অভিযান চলছে। তবে সময় যত গড়াচ্ছে, নিখোঁজ সাবমেরিনটিতে মজুত থাকা অক্সিজেন ততই ফুরিয়ে আসছে। যুক্তরাষ্ট্রের কোস্টগার্ড বলছে, টাইটান নামের সাবমেরিনটিতে এখন যে পরিমাণ অক্সিজেন আছে, তা দিয়ে পর্যটকেরা ৩০ ঘণ্টারও কম সময় টিকে থাকতে পারবেন।

নিউফাউন্ডল্যান্ডের রাজধানী সেন্ট জনস থেকে প্রায় ৯০০ মাইল (১ হাজার ৪৫০ কিলোমিটার) পূর্বে এবং ৪০০ মাইল (৬৪৩ কিলোমিটার) দক্ষিণে সাগর এলাকায় সাবমেরিনটি নিখোঁজ আছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সাবমেরিনটিতে থাকা পাঁচ যাত্রীর পরিচয় জানতে পেরেছে বিবিসি। তাঁরা হলেন হ্যামিশ হার্ডিং, শাহজাদা দাউদ, সুলেমান দাউদ, পল হেনরি নিরজিওলেট ও স্টকটন রাশ।

৫৮ বছর বয়সী হ্যামিশ হার্ডিং একজন ব্রিটিশ অভিযাত্রী। তিনি মহাকাশে গেছেন এবং বেশ কয়েকবার দক্ষিণ মেরুতেও ভ্রমণ করেছেন।

৪৮ বছর বয়সী শাহজাদা দাউদ পাকিস্তানের একটি ধনী পরিবারের সদস্য। ব্রিটিশ রাজা তৃতীয় চার্লসের প্রতিষ্ঠিত দুটি দাতব্য প্রতিষ্ঠানের সেবা কাজের সঙ্গে তিনি যুক্ত। তাঁর ছেলে সুলেমান দাউদও ওই সাবমেরিনে ছিলেন। ১৯ বছর বয়সী সুলেমান একজন শিক্ষার্থী।

অন্য খবর  আজ শেষ হজ ফ্লাইট, কাল থেকে আনুষ্ঠানিকতা

৭৭ বছর বয়সী পল হেনরি নারজোলেত ফরাসি নৌবাহিনীর সাবেক ডুবুরি। ১৯৮৭ সালে টাইটানিকের ধ্বংসাবশেষের এলাকায় যাওয়া প্রথম অভিযানকারী দলের সঙ্গে তিনি ছিলেন।

৯৬ ঘণ্টা পানির নিচে থাকার সক্ষমতা আছে সাবমেরিনটির

 

 

আপনার মতামত দিন