ঢাকার দোহার পৌরসভার ২০২২-২০২৩ অর্থ বছরের ৩১ কোটি ৭৩ লক্ষ টাকার বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। বুধবার পৌরসভা কার্যালয়ে ২৪তম এ বাজেট ঘোষণা করেন পৌর প্রশাসক আজাদ হোসেন খান।

এসময় দোহার পৌরসভার প্রশাসক আজাদ হোসেন খানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দোহার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আলমগীর হোসেন। এ সময় তিনি বলেন, পৌরসভার সবচেয়ে বড় সমস্যা হল জনগন পৌর কর দেয় না। আমি সাবেক মেয়র আলহাজ্ব আব্দুর রহিম মিয়া সাথে কথা বলেছি তিনি আমাকে এ বিষয় টা জানান। যার জন্য পৌরসভার উন্নয়ন করা সম্ভব কম হয়েছে। তবে এবার আমাদের এমপি মহোদয় সালমান এফ রহমান তিনি নিজে এই পৌরসভার উন্নয়নের দিকে নজর দিয়েছে যার ফলশ্রুতিতে দোহার পৌরসভার ৩২ কোটি টাকা ব্যায়ে পৌর এলাকায় পানি সাপ্লাই এর ব্যবস্থা করেছে। তিনি দোহার উপজেলা এবং পৌরসভাকে মডেল করবেন বলেছেন। যাতে পরবর্তী প্রজন্ম এ সুবিধা ভোগ করতে পারে।

এ বাজেটে কোনো কর বৃদ্ধি করা হয়নি। নিজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধার্য্য করা হয়েছে ৭ কোটি ৪ লক্ষ টাকা। তারমধ্যে হোল্ডিং ট্যাক্স বাবদ ১ কোটি ৯৫ লক্ষ টাকা এবং পরোক্ষ কর বাবদ ৫ কোটি ৯ লক্ষ টাকা।

অন্য খবর  নবাবগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে কৃষকের মৃত্যু

রাজস্ব ব্যয়ের লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৭ কোটি ৮৯.৭৭ লক্ষ টাকা। তন্মধ্যে:

  • সাধারণ সংস্থাপন খাতে ব্যয় ৩ কোটি ৬৩.৪৭ লক্ষ টাকা
  • শিক্ষা, সংস্কৃতি ও খেলাধুলা খাতে ব্যয় ৫.২০ লক্ষ টাকা
  • জনস্বাস্থ্য খাতে ১৪.৫০ লক্ষ
  • পরিবেশ ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা খাতে ৬৫ লক্ষ
  • সামাজিক নিরাপত্তা খাতে ২৩.৫০ লক্ষ
  • জাতীয় দিবস ও ধর্মীয় অনুষ্ঠান খাতে ৫.৫০ লক্ষ
  • দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও জরুরী ত্রাণ খাতে ১৫ লক্ষ টাকা
  • ভ্যাট পরিশোধ খাতে ১১ লক্ষ টাকা
  • আয়কর পরিশোধ খাতে ১২ লক্ষ
  • যানবাহন ও অফিস আসবাবপত্র খাতে ১৫ লক্ষ
  • উন্নয়ন খাতের ঋণ পরিশোধ খাতে ২৫ লক্ষ
  • রাজস্ব উন্নয়ন খাতে ২ কোটি ১৫ লক্ষ টাকা

মোট উন্নয়ন ব্যয়ের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে ২৫ কোটি ৫৬.৫০ লক্ষ টাকা। এর মধ্যে :

  • রাস্তা উন্নয়ন খাতে ৪ কোটি ১০ লক্ষ
  • ড্রেন উন্নয়ন খাতে ১২ কোটি ৬৫ লক্ষ
  • স্ট্রীট লাইট খাতে ২০ লক্ষ
  • পৌর ভবন নির্মাণ ও মেরামত প্রকল্পে ব্যয় ৩০ লক্ষ
  • ডিজাইন, টেস্টিং, কনসালটেশন খাতে ৩১ লক্ষ
  • উন্নয়ন মিলে সর্বমোট ব্যয়ের লক্ষ ৩৫ কোটি ৩.৬৮ লক্ষ টাকা
অন্য খবর  দোহার পৌরসভায় জলাবদ্ধতা নিরসনের উদ্যোগ নেই

বাজেটে সরকারের উন্নয়ন সহায়তা তহবিল হতে ১ কোটি ২০ লক্ষ, গুরুত্বপূর্ণ নগর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প থেকে ৬ কোটি, জলবায়ু পরিবর্তন অভিযোজন ও প্রশমন প্রকল্প থেকে ৮ কোটি এবং বিএমডিএফ উপ-প্রকল্প থেকে ৬ কোটি টাকা বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে।

এ সময় বাজেট সম্পর্কে প্রশ্নের উত্তর দেন পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী মশিউর রহমান। পৌর সচিব নাসরিন জাহানের সঞ্চালনায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মেয়র, কাউন্সিলর ও মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থীগণ, সাংবাদিক এবং পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ অনেকে।

আপনার মতামত দিন