দোহার-নবাবগঞ্জে সালমান এফ রহমানের নৌকা মার্কার বিজয় সময়ের ব্যাপার মাত্রঃ নির্মল রঞ্জন গুহ

297
নির্মল রঞ্জন গুহ

দোহার-নবাবগঞ্জে সালমান এফ রহমানের নৌকা মার্কার বিজয় সময়ের ব্যাপার। ৩০ ডিসেম্বর সারা দেশের মতো দোহার-নবাবগঞ্জে নৌকার পক্ষে জোয়ার সৃষ্টি হয়েছে।  স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ গতকাল ২৭ ডিসেম্বর নয়াবাড়ি ইউনিয়নের বাহ্রাঘাট ও দোহার খালপাড়ে পৃথক দুইটি সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্যে উপরুক্ত কথাগুলো বলেন।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ বলেন দোহার নবাবগঞ্জে নৌকার পক্ষে গনজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। দোহারের নয়াবাড়ি থেকে মুকসুদপুর এবং নবাবগঞ্জের জয়কৃষ্ণপুর থেকে কৈলাইল পর্যন্ত প্রতিটি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা গত দশ বছরের আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়নের সমস্ত কর্মসূচি ও দোহার-নবাবগঞ্জে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সালমান এফ রহমানের নেতৃত্বে দোহার-নবাবগঞ্জের প্রধান সমস্যা পদ্মানদীর ভাঙ্গন রোধে গৃহিত পদক্ষেপ ও রাস্তাঘাটের সার্বিক উন্নয়ন তুলে ধরে ইতিমধ্যে ব্যাপক প্রচার-প্রচারনা করেছে। দোহার-নবাবগঞ্জের জনসাধারন বুঝতে পেরেছে তাদের প্রার্থী জনাব সালমান এফ রহমান নির্বাচিত হওয়ার পূর্বেই দোহার-নবাবগঞ্জে যে উন্নয়ন কাজ শুরু করেছেন তাকে নির্বাচিত করে এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হবে।

তিনি আরো বলেন, উন্নয়নের মহাসড়কে বাংলাদেশ। কাজেই মুক্তিযুদ্ধের মহান এই বিজয়ের মাসে বাংলাদেশের জনগন জাতির জনক বংগবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সরকারকে বিজয়ী করে চলমান উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখবে। এই দেশে আর কখনোই মুক্তিযুদ্ধের পরাজিত শক্তির উথান দেশ প্রেমিক জনতা দেখতে চায় না। তাই ৩০ ডিসেম্বর সারাদেশের মত দোহার নবাবগঞ্জেও বিপুল ভোটের ব্যবধানে জননেত্রী শেখ হাসিনা মনোনীত প্রার্থী সালমান এফ রহমানকে বিজয়ী করতে হবে।

অন্য খবর  নবাবগঞ্জে নির্বাচনের পর প্রতিপক্ষের উপর হামলা: থানায় মামলা

এছাড়া আবাহনী লিমিটেডের ডিরেক্টর মুহাম্মদ নিজাম উদ্দিন, স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির ক্রীড়া সম্পাদক এনাম-ই-খোদা জুলু ও আবাহনী সমর্থক গোষ্ঠীর সভাপতি বাবু অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন।

নির্মল রঞ্জন গুহ

এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি বজলুর রহমান কামাল, সহ-সভাপতি ফজলুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ সাখাওয়াত হোসেন নান্নু, স্বেচ্ছাসেবক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট শাহিনুর ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা শামসুল আলম খোকন, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা দেলোয়ার হোসেন,শেখ রনু, শহিদুল ইসলাম সুমন, আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরামের কেন্দ্রীয় নেতা ইঞ্জিনিয়ার হিরন, ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সদস্য সেকেন্দার আলী মোল্লা, দোহার উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোল্লা হাবিবুর রহমান, নয়াবাড়ি আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী আব্দুর রশিদ, সাধারন সম্পাদক শহীদ খান, নয়াবাড়ি ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারন সম্পাদক আবুল কালাম আজাদসহ অসংখ্য নেতা কর্মীরা। দুইটি অনুষ্ঠানেই নেতা কর্মীরা বিজয় নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত ঘরে না ফেরার সংকল্প ব্যক্ত করেন।

আপনার মতামত দিন