দোহারে ৮ম বিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে শিক্ষার্থীদের উচ্ছ্বাস

60

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, উদ্ভাবনেই সমৃদ্ধি’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে ঢাকার দোহার উপজেলায় ৪৫ তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলা, ৮ম বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড ও ৮ম বিজ্ঞান কুইজ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করা হয়েছে।

৮ম বিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে সিনিয়র গ্রুপে দলগত চ্যাম্পিয়ন হয়েছে পদ্মা সরকারি কলেজ। জুনিয়র গ্রুপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে লিবার্টি ইন্টারন্যাশনাল স্কুল।

গতকাল মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) ২ দিন ব্যাপি দোহার উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে জয়পাড়া সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে এ মেলার উদ্বোধন করেন দোহার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আলমগীর হোসেন।

এ সময় তিনি বলেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলার মাধ্যমে আগামী দিনের বাংলাদেশ নতুন নতুন উদ্ভাবন নিয়ে ডিজিটাল ও স্মার্ট প্রজন্ম গড়ে তুলতে সহায়তা করবে। তথ্য প্রযুক্তির বিকাশ ঘটিয়ে শিক্ষার্থীরা নতুন কিছু তৈরী করে দেশকে আরো এগিয়ে নিয়ে যাবে।

মেলা ঘুরে দেখা গেছে, বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা স্মার্ট ভিলেজ, বায়ু বিদ্যুৎ ও সৌর বিদ্যুৎ প্রকল্প (নবায়নযোগ্য শক্তির ব্যবহার), পলিথিন রিসাইকেল করে সম্পদে রুপান্তর, আমার বাড়ি আমার খামার, মাটি থেকে বিদ্যুৎ উৎপন্ন, স্মার্ট চুলা থেকে শুরু করে বিভিন্ন প্রজেক্টের প্রদর্শন করে।

অন্য খবর  মৈনটে স্পীড বোটের সংঘর্ষ: আরও ২ লাশ উদ্ধার, নিখোঁজ এখানো ৩

এই মেলায় দুটি গ্রুপে ভাগকরা হয় সিনিয়ার গ্রুপ ও জুনিয়ার গ্রুপ। দুই গ্রুপ এ দশজনকে পুরস্কৃত করা হয়। এছাড়াও দল নেতাসহ শিক্ষক পর্যায় তিন স্কুলের নয় জনকে পুরস্কৃত করা হয়।

দোহার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাকির হোসেন বলেন, দিনদিন বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীর সংখ্যা কমে যাচ্ছে। দেশের শিক্ষার্থীরা আজ ব্যবসায় শিক্ষামুখী। এধরনের মেলার মাধ্যমে অনেকেই বিজ্ঞানের প্রতি আকৃষ্ট হবে। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে বিজ্ঞান শিক্ষার বিকল্প নেই। আমাদের পরবর্তী প্রজন্মকে অবশ্যই এ শিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তুলতে হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন দোহার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাকির হোসেন, দোহার উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রাকিব হাসান, জয়পাড়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল খালেক, মোস্তাক আহমেদ, ইকরাশী আর্দশ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক একলাল উদ্দিনসহ উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত দিন