যমুনা সেতুর রক্ষণাবেক্ষণে ঘুষ নেয়ার অভিযোগে নাজমুল হুদাকে তলব দুদকের

112
নাজমুল হুদা 

যমুনা সেতুর পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণ কাজের জন্য ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মার্গানেট ওয়ান লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকের কাছ থেকে ৬ লাখ টাকা ঘুষ নেয়ার অভিযোগে দায়ের হওয়া মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাবেক যোগাযোগমন্ত্রী ব্যারিস্টার নাজমুল হুদাকে তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

রোববার দুদকের সহকারী পরিচালক মনিরুল ইসলামের স্বাক্ষরিত এক নোটিশের মাধ্যমে তাকে তলব করা হয়। নোটিশে তাকে আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি দুদকে হাজির হতে বলা হয়েছে।

রোববার বিকালে দুদকের বিশেষ বার্তাবাহকের মাধ্যমে নাজমুল হুদার ধানমণ্ডির ৫ নম্বর রোডের ৩১ নম্বর বাড়ির ঠিকানায় এ নোটিশ পাঠানো হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দুদকের উপপরিচালক ও জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য।

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মার্গানেট ওয়ান লিমিটেডের চেয়ারম্যান, ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও পরিচালকের কাছ থেকে ২০০৪ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে ২০০৬ সালের ১৮ অক্টোবর পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে চেকের মাধ্যমে ৬ লাখ টাকা ঘুষ গ্রহণ করেন। ২০০৮ সালের ১৮ জুন রাজধানীর মতিঝিল থানায় মামলা করেন দুদকের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ বেলাল হোসেন।

ওই মামলার তদন্ত শেষ করতে নাজমুল হুদাকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে দুদক। কমিশনের ১৯ ও ২০ ধারা এবং কমিশনের বিধিমালার ২০ বিধিসহ ফৌজধারি কার্যবিধি ১৬০ ধারায় নাজমুল হুদার জবানবন্দি গ্রহণ করবে দুদক।

অন্য খবর  দোহারের উপজেলা চেয়ারম্যানদের শপথ অনুষ্ঠিত

এদিকে চাঞ্চল্যকর এ মামলায় ২০০৮ সালের ২২ জুলাই পাঁচজন সাক্ষী আদালতে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। তারা হলেন- সৈয়দ আমেদ ফারুক, রুস্তম আলী হাওলাদার, এসএম আবদুল মান্নান, মো. আনোয়ারুল হক ও মো. মোবারক হোসেন।

Comments

comments