স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে দোহার জামায়াতের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

310

মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে দোহার থানা জামায়াতে ইসলামী এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল বিকাল ৫ টায় জামায়াতে ইসলামীর দোহার থানার অফিসে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। জামায়াতের দোহার থানার সেক্রেটারি নূরে আলম ঝিলুর উপস্থাপনায় সভাপতিত্ব করেন জামায়াতের দোহার থানার আমীর এ,বি,এম কামাল হোসাইন। অন্যানের মধ্যে ছিলেন জামায়াতের দোহার থানার নায়েবে আমীর মাওলানা মুবিনুর রহমান, জামায়াত নেতা ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মাওলানা মুসলেম উদ্দিন খান, শিবিরের দোহার থানা দক্ষিনের সভাপতি মো. আসাদুজ্জামান সবুজ, দোহার থানা পশ্চিম অংশের সভাপতি বেলাল হোসাইন ও দোহার পৌরসভার সভাপতি সেলিম উদ্দিন। বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় মুসলেম উদ্দিন খান বলেন, “দেশে এখন গুম, খুনের রাজনীতি হচ্ছে । এ সরকার বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের গুম করে তাদের নিশ্চিহ্ন করতে চাচ্ছে।” তিনি জহির রায়হানের প্রসঙ্গ তুলে বলেন, “জহির রায়হান যুদ্ধের পর এক আলোচনায় তৎকালীন ক্ষমতাসীন ব্যক্তিদের উদ্দেশে বলেন, আপনারা বেশী কথা বলবেন না। যুদ্ধের সময় কে কি করেছিলেন, তা আমার কাছে আছে । সময় হলে তা প্রকাশ করা হবে। এর পরই তিনি গুম হয়েছিলেন।”

অন্য খবর  আলালপুর-কাশীয়াখালী বেড়িবাধ রাস্তা সংস্কাকারের কাজ চলছে

নায়েবে আমীরের বক্তৃতায় মুবিনুর রহমান বলেন, জামায়াতে ইসলামী কোন দিনই স্বাধীনতার বিপক্ষে ছিল না। জামায়ত চেয়েছিল নিজেদের শক্তি দিয়ে নিজেরাই স্বাধীনতা করবে। অন্য কোন দেশের মাধ্যমে স্বাধীনতা অর্জন না করা।

কাদের সিদ্দিকির এক বক্তব্য তুলে ধরে জামায়াতের এই নেতা বলেন , জামায়াত যে কথাটি ৪১ বছর আগে বুঝেছিল , সে কথাটি আমি (কাদের সিদ্দিকী) আগে বুঝতে পারলে যুদ্ধই করতাম না।

শিবির সভাপতি আসাদুজ্জামান সবুজ বলেন, আমরা নতুন প্রজন্মের সন্তান । আমরা সকলের কাছে শুনেছি বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে । কিন্তু স্বাধীনতার ৪৩ বছরে আমরা ৪৩ মিনিট স্বাধীনতা পেয়েছি কিনা তাতে সন্দেহ আছে । তাই আমাদের উচিত স্বাধীনতার এই দিনে আগামী প্রজন্মের জন্য স্বাধীনতার সঠিক তথ্য সংগ্রহ করে জাতির সামনে তুলে ধরা । সর্বশেষে সভাপতির বক্তৃতায় থানা আমীর এ,বি,এম কামাল হোসাইন বলেন, আজ কি দেশে কোন গণতন্ত্র আছে ? আমি বলি দেশে কোন গণতন্ত্র নেই । আজ স্বাধীনতা দিবসে ভাষা সৈনিক অধ্যাপক গোলাম আযম সহ দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ কারাগারে বন্দি। সরকার টের পেয়েছে উপজেলা নির্বাচনের মাধ্যমে । দেশের জনগন আজ জামায়াত-শিবিরকে দেখতে চাচ্ছে ক্ষমতায় । তাই জনগন আজ সারা দেশে জামায়াতের হাতে তাদের ক্ষমতা তুলে দিচ্ছে । কিন্তু সরকার জনগণের এই অধিকারও কেড়ে নিতে চাচ্ছে । তাই আসুন স্বাধীনতার এই দিনে আমরা শপথ নেই, আগামীতে দেশের বিরুদ্ধে যেকোন ষড়যন্ত্র একসাথে মোকাবেলা করব । প্রয়োজন হলে আবারও যুদ্ধ করে দেশকে প্রকৃত স্বাধীনতা এনে দিব ।

অন্য খবর  দোহারের পদ্মা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে শহীদ দিবস পালন

প্রেস রিলিজ

Comments

comments