২৪ দিনেও খোঁজ মেলেনি আফসানার

558

নিখোঁজের ২৪ দিন অতিবাহিত হলেও এখনো সন্ধান মেলেনি ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলার বিলপল্লী গ্রামের প্রবাসী মো: জুয়েল মণ্ডলের স্ত্রী আফসানার আক্তার মঞ্জুরার। ঘটনার পরের দিন আফসানার শ্বশুর মো: আওলাদ নবাবগঞ্জ থানায় একটি জিডি করেন। এ ঘটনায় নবাবগঞ্জ থানা পুলিশ কোনো কূলকিনারা করতে না পারায় পরিবারের লোকজন উৎকণ্ঠার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন। এ দিকে মোবাইল ফোনে আফসানার মুক্তির জন্য ৫০ হাজার টাকা দাবি করা হয়েছে বলে জানান পরিবারের সদস্যরা।

নিখোঁজ আফসানার ভাই জাহিদ জানান, নিখোঁজের পাঁচ দিন পর একটি মোবাইল ফোন থেকে জানানো হয় আফসানকে ফেরত পেতে হলে রাতের মধ্যেই ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দিতে হবে। মুক্তি পণের টাকা রাতের মধ্যে না পেলে আফসানাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয় তারা। ওই দিন রাতেই আফসার ভাই মুক্তিপণের ২০ হাজার টাকা বিকাশের মাধ্যমে পাঠিয়ে দেন। এর পর থেকেই নম্বরটি বন্ধ রয়েছে জানান আফসানার ভাই জাহিদ।

জানা যায়, দুই বছর আগে নবাবগঞ্জের নয়নশ্রী ইউনিয়নের বিলপল্লী গ্রামের মো: আওলাদ হোসেনের ছেলে কাতার প্রবাসী জুয়েল মণ্ডলের সাথে কেরানীগঞ্জের হজরতপুর উত্তর বালুরচর গ্রামের আফসানা আক্তারের বিয়ে হয়। আফসানা বিয়ের পর থেকে বাবার বাড়িতে থাকতেন। গত ১১ অক্টোবর আফাসানা শ্বশুরের অসুস্থতার খবর শুনে কেরানীগঞ্জ বাবার বাড়ি থেকে সকালে নবাবগঞ্জে স্বামীর বাড়ি যাওয়ার উদ্দেশে রওনা দেন। সর্বশেষ পরিবারের লোকজনের সাথে দুপুর ১২টার দিকে কথা হয় তার। তখন আফসানা উপজেলার বান্দুরা বাজার ব্রিজে ছিল বলে জানায় সে। এরপর থেকেই তার ব্যবহৃত মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়।

অন্য খবর  রায়পাড়ায় চোর সন্দেহে যুবক আটক

ঘটনার তদন্তকারী কর্মকর্তা নবাবগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক বাছির জানান, নিখোঁজের পর থেকেই আমরা ঘটনাটি উদঘাটনের জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

Comments

comments