মেঘুলায় খালের জমি দখল করে ভবন নির্মানের অভিযোগ

542

 

দোহার উপজেলার মেঘুলা বাজার সংলগ্ন পদ্মার শাখা খাল ভরাট করে বহুতল ভবন নির্মান করেছে একটি প্রভাবশালী মহল। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,খাল ভরাট করে স্থানীয় প্রভাবশালী মহল বহুতল ভবন ও দোকান নির্মান করে ব্যবসা বাণিজ্য চালিয়ে যাচ্ছে। স্থানীয় প্রভাবশালী দেলোয়ার শিকদার ,মোবারক হোসেন রুবেল,শাহজাহান খালাসী,দুলাল হোসেন,সারোয়ার মিয়া,মেঘুলা বাজার কমিটির লোকজন্সহ একাধিক রাজনৈতিক ব্যক্তি দীর্ঘদিন ধরে ওয়ি খাল দখল করে ব্যবসা বাণিজ্য করে আসছেন। দখলের প্রথমদিকে টিনের ঘর নির্মান করা হলেও পরে তারা সেখানে পাকা দালান নির্মান করে।বিষয়টি নিয়ে একাধিকবার বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পরে দোহার উপজেলা ভূমি অফিস থেকে দখলকৃত স্থান পরিদর্শন করা হলেও কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। এতে দখলদারেরা সরকার কর্তৃক তাদের জমি বরাদ্দ করা হয়েছে বলে এলাকায় অপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে।

ওই এলাকার বাসিন্দা নারায়ণ সাহা দাবি করে বলেন, দেলোয়ার শিকদার তাদের অংশ ক্রয় না করেই জমি দখল করে সেখানে ভবন  নির্মান করেছেন। এ বিষয়ে অভিযুক্ত দেলোয়ার শিকদার বলেন,”আমি আশির দশকে মৃত রমনী মোহন সাহার ছেলে ভেবলা সাহা,বরলাম সাহা এবং রতন সাহার কাছ থেকে মেঘুলা বাজার সংলগ্ন এ জায়গা ক্রয় করি। ভবন নির্মানের সময় আমি দেশে ছিলাম না। আমার এক আত্বীয় প্রতিবেশী রাজনীতিবিদ। তার তত্বাবধানেই এটি নির্মান করা হয়েছে”।

অন্য খবর  জয়পাড়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৩ প্রতিষ্ঠানের অর্থদণ্ড

এ বিষয়ে নারিশা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন দরানী বলেন,”খালের জমি দখল করে ভবন নির্মানের কথা শুনেছি। কাগজপত্র দেখার পরে বিষয়টি সম্পর্কে প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে”।

বিষয়টি নিয়ে দোহার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কে.এম. আল-আমীন বলেন,”খালের জমির শ্রেনি পরিবর্তনের কোন সুযোগ নেই। দখলকারীদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে”।

মন্তব্য