বান্দুরায় যাত্রী ছাউনি এখন এন মল্লিকের দখলে

198
বান্দুরায় যাত্রী ছাউনি এখন এন মল্লিকের দখলে

নবাবগঞ্জ উপজেলার বান্দুরা বাজার বাস স্ট্যান্ড এর যাত্রী ছাউনি দখল করেছে বহুল আলোচিত পরিবহন সার্ভিস  এন মল্লিক। সরকারি অর্থায়নে নির্মিত এই যাত্রী ছাউনি দখল করে এখন এন মল্লিকের টিকেট কাউন্টার ও শৌচাগার  হিসেবে ব্যবহার হচ্ছে। ফলে সাধারন যাত্রীরা যেমন এর সুবিধা পাচ্ছে না, ঠিক একইভাবে শুধুমাত্র একটি পরিবহনের দখলে থাকায় যাত্রী ছাউনিটি ব্যবহার করতে পারছে না বিআরটিসিসহ অন্যান্য পরিবহনও।

এন মল্লিক পরিবহন ব্যাবসার শুরু থেকেই সরকারি অর্থায়নে নির্মিত যাত্রী ছাওনি দখল করে এন মল্লিকের টিকেট কাউন্টার ঘর,  শৌচাগার  হিসেবে ব্যাবহার করে আসছে যা সম্পূর্ণ আইন বিরোধী। জনসাধারনের সুবিদার্থে সরকারি অর্থায়নে নির্মিত যাত্রীঘর জন সাধারন ছাড়া অন্য কোনো ব্যক্তি মালিকানা প্রথিষ্ঠান বা কোনো ব্যাক্তির একক ভাবে ব্যবহার করার অধিকার নেই এমনটাই জানিয়েছেন যাত্রীরা।

কোন প্রতিষ্ঠানকে টাকার বিনিময়ে ও ব্যবহার করতে দেওয়ার কোনো রকম সুযোগ না থাকা সত্ত্বেও এন মল্লিক আইন কে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে প্রশাসনকে কোন রকম তোয়াক্কা না করে যেমন ইচ্ছা তেমনভাবে যাত্রীদের মারধর, বিভিন্ন সময়ে জোরপূর্বক বেশি ভাড়া আদায়, ভাড়াটে গুন্ডা বাহিনী দিয়ে সাধারন মানুষ ও যাত্রীদের ভয় দেখানো, হুমকি ধামকি দেওয়াসহ নানা অপকর্মে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে।

অন্য খবর  খালেদা জিয়ার জনসভায় দোহার-নবাবগঞ্জ বিএনপির অংশ গ্রহন

তাই সাধারন যাত্রীদের সুবিধার জন্য যাত্রী ছাউনিটি এন মল্লিক পরিবহনের হাত থেকে উদ্ধার করে তা সাধারন যাত্রীদের ব্যবহারের জন্য উন্মুক্ত করা হোক এই দাবি জানিয়েছেন স্থানী জনসাধারন ও যাত্রীরা।

উল্লেখ থাকে যে, গত ৯-ই মার্চ এন মল্লিক কোম্পানির এক বাস থেকে প্রতিবন্ধি এক মহিলাকে ফেলে দেয়। একই দিনে গুলিস্থান চত্তরে এন মল্লিক ও আরাম বাস কোম্পানি পাল্লাপাল্লিতে দুই বাসের চাপায় পরে এক মহিলা নিহত হয়।

মন্তব্য