ধোঁকা দিয়ে স্ত্রীকে সৌদি নিয়ে নির্যাতনের অভিযোগ

702
ধোঁকা দিয়ে স্ত্রীকে সৌদি নিয়ে নির্যাতনের অভিযোগ 

মনের আক্রোশ মেটাতে স্ত্রীকে ছলনার ফাঁদে ফেলে সৌদি আরব নিয়ে গিয়ে মরুভূমির নির্জন ঘরে দেড় মাস আটকে রেখে পাশবিক নির্যাতন চালিয়েছে তারই স্বামী। শুধু তাই না পাশাপাশি স্ত্রীকে দিয়ে অনৈতিক কাজ করিয়ে টাকা উপার্জনেরও চেষ্টা চালানো হয়। ঘটনাটি ঘটিয়েছেন দোহারেরই এক প্রবাসী।

চার বছর আগে ঢাকার দোহারের মাঝিরচর গ্রামের সৌদি প্রবাসী মোহাম্মদ জাহাঙ্গীরের সঙ্গে বিয়ে হয় পাশের ঝনকি গ্রামের রিতার। বিয়ের পর স্ত্রী জানতে পরে স্বামী জাহাঙ্গীর একটি মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি হবার কারণে দেশের বাইরে থাকে। এরই মধ্যে পরিবারের আরো নানা বিষয় নিয়ে স্বামীর সঙ্গে সম্পর্কে তিক্ততা বাড়ে রিতার। এরপর দুজনের মধ্যে অনেক দিন যোগাযোগও বন্ধ থাকে।

গেলো মার্চ মাসের মাঝামাঝি সময়ে স্বামী জাহাঙ্গীর নানা ছলনার আশ্রয় নিয়ে স্ত্রীকে নতুন করে সংসার সাজানোর প্রলোভন দেখিয়ে সৌদি নিয়ে যায়। যাবার পরপরই রিতার উপর স্বামীর ভয়ঙ্কর নির্যাতন শুরু হয়। রিতাকে দিয়ে অনৈতিকভাবে টাকা উপার্জনেরও চেষ্টা চালায় জাহাঙ্গীর।

কিন্তু কোনভাবেই স্ত্রীকে রাজী করতে না পারায় বাধ্য হয়ে মে মাসে রিতাকে বাবার বাড়ি রেখে যেতে দোহার আসে জাহাঙ্গীর। পূর্বের ঘটনা জানতে পেরে সেখান থেকেই জাহাঙ্গীরকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

অন্য খবর  ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি দোহারের ভি পি কামাল

দোহার থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম শেখ জানান, ঘটনার সত্যতা পেয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাকে থানায় আনার পর দেখা যায় সে একটি মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি।

অন্যদিকে, এ বিষয়ে অভিযুক্ত জাহাঙ্গীরের পরিবারে সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারা কথা বললে রাজি হননি।
বর্বর এ ঘটনার যথোপযুক্ত বিচারের দাবি করেছেন, স্থানীয়রা।

Comments

comments