দোহারে সেতুতে বাঁশের বেড়া

252

ঢাকার দোহার উপজেলার রায়পাড়া ইউনিয়নের পালামগঞ্জ এলাকায় সেতুর ভাঙা অংশে দুর্ঘটনা এড়াতে দেওয়া হয়েছে বাঁশের বেড়া। এমন বেড়া দিয়ে দুর্ঘটনা রোধের চেষ্টা চলাছে দোহার উপজেলার রায়পাড়া ইউনিয়নের পালামগঞ্জ এলাকাবাসী। প্রায় বিশ বছর আগে নির্মিত এই সেতুটির রেলিং ভেঙে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ে আছে কয়েক বছর ধরে।

ঐ রাস্তা দিয়ে চলাচলকারী অটোরিকশা চালক আকরাম হোসেন আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘অটো চালিয়ে এই সেতু পাড়ি দিতে ভয় লাগে। বাঁশের বেড়া থাকায় সেতু পাড়ি দিতে কিছুটা সাহস পাই।’

জানা গেছে, এই সেতুর উপর দিয়ে রাস্তাটি দোহার উপজেলার রায়পাড়া ইউনিয়ন হয়ে পাশ্ববর্তী থানা নবাবগঞ্জ উপজেলার বান্দুরা বাজারসহ মানিকগঞ্জের জন্যও এটি ব্যবহার করা হয়ে থাকে। পালামগঞ্জ বাজারের নদীর ওপর রয়েছে এ সেতুটি।

পালামগঞ্জ বাজারের চা দোকানি আব্দুল কালাম জানান, প্রায় তিন চার বছর আগে এই সেতুটি রেলিং ভেঙে পড়ে আছে কিন্তু দেখার মত কেউ নাই। নতুন নির্বাচিত চেয়ারম্যান এসেছে দেখা যাক সে কি জনগণের জন্য এই সেতুটি মেরামত করে দেন কি না?

স্থানীয় বাসিন্দা ঝিলু বলেন, “আমরা স্থানীয়ভাবে দুর্ঘটনার ঝুঁকি এড়াতে বাঁশের বেড়া দিয়েছি। দুর্ঘটনার শিকার হয়ে অনেকেই আহত হয়েছেন এখানের এই সেতুর মধ্যে,

ঐ স্থানের আরেক বাসিন্দা পংকজ শীল আজকের পত্রিকাকে জানান, এই সেতুটির রেলিং কয়েক বছর আগে ভেঙে পরে যায়। পরে আমরা স্থানীয় কয়েক জন মিলে এই সেতুটি বাঁশ দিয়ে ঠিক করি কারণ ছোট ছোট ছেলে মেয়েরা এখান দিয়ে যাতায়াত করে সে জন্য। তাছাড়া আমরা যখন পার্শ্ব রাস্তা দিয়ে এই সেতুটিতে উঠি তখন রেলিং ভাঙ্গা কারণে ভয়ে থাকি যে পরে যায় কি না সে জন্য আমরা এটিতে বাঁশ দিয়ে রেখেছি।,

রায়পাড়া ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন আজকের পত্রিকাকে জানান, সেতুটির টেন্ডার হয়েছে ঢাকার একটি লোক পেয়েছে। আগামী মাসেই কাজ শুরু করা হবে।

আপনার মতামত দিন