দারিয়া হত্যায় ইউক্রেন জড়িত; দাবি রাশিয়ার

16
দারিয়া হত্যায় ইউক্রেন জড়িত

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের তাত্ত্বিক গুরু বলে পরিচিত দার্শনিক অ্যালেক্সান্ডার দাগিনার মেয়ে দারিয়া দাগিনাকে ইউক্রেন হত্যা করেছে বলে দাবি করেছে রাশিয়ার গোয়েন্দা সংস্থা এফএসবি। হত্যাকাণ্ডের প্রাথমিক তদন্ত শেষে ইউক্রেনের জড়িত থাকার শক্ত প্রমাণ পেয়েছে বলে দাবি করেছে রুশ গোয়েন্দা সংস্থাটি। তবে দারিয়া দাগিনাকে হত্যার অভিযোগ অস্বীকার করেছে ইউক্রেন।

গত শনিবার (২০ আগস্ট) রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর কাছে গাড়িবোমা বিস্ফোরণে নিহত হন ২৯ বছর বয়সী দারিয়া দাগিনা। ব্যক্তিগত জীবনে দারিয়া একজন সাংবাদিক ও রাজনৈতিক ধারাভাষ্যকার।

রাশিয়ার ফেডারেল সিকিউরিটি সার্ভিস (এফএসবি) এ হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে জানায়, ইউক্রেনের গোয়েন্দা সংস্থার নাতালিয়া ভুক নামের ৪৩ বছর বয়সী একজন কর্মকর্তা তার কিশোরী মেয়েকে নিয়ে গত মাসে রাশিয়ায় প্রবেশ করেন। তারা দারিয়া দাগিনার অ্যাপার্টমেন্ট ভবনে অন্য একটি অ্যাপার্টমেন্ট ভাড়া নেন। সেখান থেকে তারা দারিয়ার গতিবিধির উপর নজর রাখেন এবং সুযোগ পেয়ে তার গাড়িতে রিমোট কন্ট্রোল বোমা পেতে রাখেন।

এফএসবি জানিয়েছে, শনিবার গাড়ি বোমা বিস্ফোরণে দারিয়া নিহতের পর নাতালিয়া ভুক ও তার মেয়ে এস্তোনিয়া পালিয়ে গেছেন। এফএসবির দাবি, ভুক সন্দেহ ছাড়া সহজে রাশিয়ায় ঘোরাফেরা করতে তার কিশোরী মেয়েকে ব্যবহার করেছিলেন। তিনি যে ভবনে অ্যাপার্টমেন্ট ভাড়া নিয়েছেন সেই ভবনের দরজায় লাগানো একটি সিসি ক্যামেরা থেকে তার ভিডিও ও ছবি পাওয়া গেছে।

অন্য খবর  কারাগারে মারা গেলেন মসজিদ-উল নববীর ইমাম

দারিয়ার মৃত্যুতে শোক জানিয়ে পুতিন বলেছেন, তিনি একজন উজ্জ্বল ব্যক্তিত্ব এবং সত্যিকারের রুশ হৃদয়ের একজন প্রতিভাবান নাগরিক। দারিয়া দাগিনার হত্যাকাণ্ডকে জঘন্য এবং নিষ্ঠুর অপরাধ বলে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, দারিয়া দাগিনার বাবা ৬০ বছর বয়সী অ্যালেক্সান্ডার দাগিনা রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের ঘনিষ্ট। অ্যালেক্সান্ডার দাগিনা কট্টর জাতীয়তাবাদী মতবাদ ও লেখালেখি পুতিনকে গভীরভাবে প্রভাবিত করে বলে মনে করা হয়। ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রসনের জন্য পুতিনকে তাত্ত্বিক মদত অ্যালেক্সান্ডার দাগিনা দিয়েছিলেন বলেও ধারণা করা হয়।

মন্তব্য