কেরানীগঞ্জে স্ত্রীকে হত্যার পর পালিয়ে যাওয়া স্বামী সুমন গ্রেফতার

59

কেরানীগঞ্জে স্ত্রী জোসনা আক্তারকে(২৫) নৃশংসভাবে হত্যার পর দুই শিশুকন্যাকে নিয়ে পালিয়ে যাওয়া স্বামী সুমনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার বরিশাল লঞ্চ টার্মিনাল থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় দুই শিশুকন্যাকে তার সঙ্গে অক্ষত অবস্থায় পাওয়া গেছে।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ বলেন, স্ত্রীকে হত্যার পর দুই শিশুকন্যাকে নিয়ে পালানোর সময় পথে শশুরকে দেখে মাথায় আঘাত করে তার সংসারের একমাত্র আয়ের উৎস অটোরিকশাটিও নিয়ে পালিয়ে যায়।পরে কৌশলে সুমন অটোরিকশাটি ১৬ হাজার টাকা বিক্রি করে সদরঘাট থেকে লঞ্চে বরিশালের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। এটা জানতে পেরে পুলিশ বরিশাল লঞ্চ টার্মিনালে অবস্থান নেয় এবং এক পর্যায়ে সুমনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। তাকে ও দুই শিশুকন্যাকে সড়কযোগে ঢাকায় আনার হয়। পরে সুমনের দেওয়া তথ্যমতে সেই অটোরিকশাটি উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও জানান, পুলিশের ৩২ ঘন্টার অক্লান্ত পরিশ্রমে ঘটনার সংশ্লিষ্ট আলামতসহ সকলকে গ্রেফতার করা হয়। সুমন মাদকাসক্ত। সে ঠিকমতো কাজকর্ম করতো না বিধায় প্রায়ই স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া ও মনোমালিন্য হতো। অনেক সময় সুমনকে বাসায় ঢুকতে দিতো না জোসনা। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, এসব কারণে ক্ষিপ্ত হয়ে সে জোসনাকে নৃশংসভাবে হত্যা করেছে।

অন্য খবর  কৃষকের ওপর হামলা, ৪ দিনেও মামলা নেয় নি পুলিশ

উল্লেখ্য, বুধবার সকালে তেঘরিয়া পশ্চিমদি এলাকার ভাড়া বাসা থেকে জোসনার রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পেট, যৌনাঙ্গ এবং হাত-পায়ের রগ কেটে জোসনাকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়।

Comments

comments