কেরানীগঞ্জে থেকে এক যুবতীর লাশ উদ্ধার

31

ঢাকা জেলার কেরানীগঞ্জে বাড়ির পার্শ্ববর্তী ডোবার ঝোপের ভেতর থেকে সিমা (২১) নামের এক যুবতীর লাশ উদ্ধার করেছে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ। নিহত সিমার পিতার নাম ছোট্টু মিয়া, সে বর্তমানে পেশায় বাসের হেলপার স্বামী সোহেল রানার সাথে আব্দুল্লাহপুর করের গাঁও গ্রামের জলিল (কানার) বাড়িতে ভাড়া থাকতো।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) খালেদুর রহমান জানান, রবিবার বিকেলে আব্দুল্লাহপুর করেরগাঁও এলাকায় জলিলের বাড়ির পার্শ্ববর্তী ডোবার ঝোপের ভেতর লাশটি দেখতে পেয়ে এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দিলে থানার এসআই শাকিব ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য মিটফোর্ড হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে তাকে গলা টিপে হত্যা করে লাশটি পার্শ্ববর্তী ডোবার ঝোপের ভেতর ফেলে দেয়া হয়েছে।

তবে নিহতের পরিবারের দাবি স্বামী সোহেল রানার সাথে নিহত সীমার প্রায়ই ঝগড়া-বিবাদ হত, গতকাল ভোররাতে ঝগড়ার এক পর্যায়ে সোহেল রানা তাকে হত্যা করে পালিয়েছে। এ ঘটনায় আসামি সোহেল রানাকে গ্রেফতারে পুলিশের তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।

মন্তব্য