কেমন হলো ব্রাজিলের বিশ্বকাপ স্কোয়াড?

বড় দলের মধ্যে সবার আগে বিশ্বকাপের দল ঘোষণা করেছে ব্রাজিল। ২৬ জনের দলে বড় চমক নেই সেই অর্থে। লিভারপুলের ইনফর্ম ফরোয়ার্ড রবার্তো ফিরমিনো জায়গা পাননি, সেটা নিয়ে কথা হচ্ছে। নেই আর্সেনালের ডিফেন্ডার গ্যাব্রিয়েলও। এ ছাড়া মোটামুটি অনুমিতদেরই রেখেছেন তিতে।

গত এক বছরে যাদের ঘুরিয়ে ফিরিয়ে খেলিয়েছেন, তাদের প্রায় সবাইকেই ডেকেছেন তিতে। এই দলের সবচেয়ে বড় শক্তি আক্রমণভাগ। রিয়ালের ভিনিসিয়াস ভিনিসিয়ুস, রদ্রিগো, পিএসজির নেইমার, ম্যান ইউনাইটেডের অ্যান্টনি, বার্সার রাফিনহা, আর্সেনালের জেসুস-মার্টিনেলি, টটেনহামের রিচার্লিসন- কমবেশি সবাই ক্লাব ফুটবলে ভালো সময় কাটাচ্ছেন। এর মধ্যে কয়জনকে বা কাকে তিতে খেলাবেন সেটাই প্রশ্ন। নেইমারসহ মোট চারজনকে বেছে নিতে পারেন তিতে। সেক্ষেত্রে মিডফিল্ডের স্পট দুইটি। সেখানে বিবেচনায় আছেন কাসেমিরো, ফ্রেড, গুমারেজ, ফাবিনিও, পাকেতারা।

তবে ব্রাজিলের মূল সমস্যা ফুলব্যাক। দানি আলভেস ৩৯ বছর বয়সে সবচেয়ে বেশি বয়সী ব্রাজিলিয়ান হিসেবে বিশ্বকাপে যাচ্ছেন। দানিলো, অ্যালেক্স সান্দ্রো, তেলেস কেউই এখন ঠিক টপ ফুলব্যাক নন। সেক্ষেত্রে মিলিতাওকে মেকশিফট ফুলব্যাক হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন তিতে।

ওদিকে সেন্ট্রাল ডিফেন্সের দুইটি জায়গা মোটামুটি পাকা। মার্কিনিওসের সাথে মিলিতাও খেলবেন, আর মিলিতাও রাইট ব্যাক হলে থিয়াগো সিলভা আছেন বিকল্প। আর গোলরক্ষক হিসেবে এলিসন আর বিকল্প এডারসন তো আছেনই।

অন্য খবর  দোহারে আবারো এসএসসি ফলাফলে শ্রেষ্ঠত্ব ড্যাফোডিলস

মন্তব্য