আজ থেকে দোহার-নবাবগঞ্জে ৭ দিনের বিধিনিষেধ

159
আজ থেকে দোহার-নবাবগঞ্জে ৭ দিনের বিধিনিষেধ

ঢাকার দোহার ও নবাবগঞ্জ উপজেলায় করোনা ভাইরাস সংক্রমণের হার ৪০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। করোনার উচ্চ সংক্রমণ রোধে আগামী ২৪শে জুন থেকে ৩০শে জুন পর্যন্ত ৭ দিনের বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। ঢাকা জেলা করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির এক সভায় এ বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়। বুধবার ঢাকার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. মমিন উদ্দিনের পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
সভায় ৯টি সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এগুলো হল-

১. দোহার ও নবাবগঞ্জ উপজেলার সাথে অন্যান্য জেলা ও উপজেলার নৌ, স্থলপথে সকল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন থাকবে।

২. করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কোনো রোগী হাসপাতালে বাইরে নিজ বাড়িতে অবস্থান করলে ওই বাড়িতে লাল পতাকা দ্বারা চিহ্নিত করতে হবে।

৩. সকলের জন্য বাধ্যতামূলকভাবে মাস্ক পরিধানের বিষয়টি নিশ্চিত করতে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা গ্রহণ করতে হবে। মানুষকে সচেতন করতে হবে, উদ্বুদ্ধ করতে হবে এবং প্রয়োজনে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে আইন প্রয়োগ করতে হবে।

এছাড়া পর্যাপ্ত মাস্ক বিতরণ করতে হবে।

৪. বিভিন্ন স্থানে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করতে হবে।

৫. খাবারের দোকান ও হোটেল-রেস্তোরাঁ সকাল ৬টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত খাদ্য বিক্রয়/ সরবরাহ করতে পারবে এবং আসন সংখ্যা অর্ধেক সেবাগ্রহীতাকে সেবা প্রদান করতে পারবে।

অন্য খবর  দোহারের লক্ষ্মীপ্রসাদে সড়ক দুর্ঘটনায় শিশুর মৃত্যু

৬. জনসমাবেশ হয় এ ধরনের সামাজিক (বিবাহোত্তর অনুষ্ঠান ওয়ালিমা, জন্মদিন, পিকনিক, পার্টি ইত্যাদি), রাজনৈতিক ও ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান বন্ধ রাখতে হবে।

৭. সকল পর্যটন কেন্দ্র, রিসোটর্, কমিউনিটি সেন্টার ও বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ থাকবে।
৮. অপ্রয়োজনীয় জনচলাচল সীমিত করতে হবে।

৯. প্রচারের জন্য মাইকিং করতে হবে

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা এবং ঢাকা-১ আসনের সংসদ সদস্য সালমান ফজলুর রহমান এমপি করোনা বিষয়ে দিকনির্দেশনা দেন। তিনি বলেন, কীভাবে কোন উপায়ে দোহার ও নবাবগঞ্জ উপজেলাবাসীদের এই মহামারির হাত থেকে রক্ষা করতে সচেতন করা যায় সেই পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। এর জন্য ঢাকা জেলা সিভিল সার্জনকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। দোহার ও নবাবগঞ্জ উপজেলাবাসীকে রক্ষার্থে ৭ দিনের বিধিনিষেধে উপজেলার সঙ্গে সকল জেলা ও উপজেলার যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করা হবে। তিনি সবাইকে বিধি-নিষেধ মেনে চলার আহবান জানান।

ঢাকা জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল ইসলামের সভাপতিত্বে ভিডিও কনফারেন্সে বিশেষ অতিথি হিসেবে যুক্ত হন স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের সচিব মোহাম্মদ আলী নুর। সভায় পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন সরদার, জেলা সিভিল সার্জন ডাক্তার আবু হোসেন মো. মইনুল আহসান, দোহার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আলমগীর হোসেন, নবাবগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ নাসিরউদ্দিন আহমেদ ঝিলু, নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার এইচ এম সালাউদ্দীন মনজু, দোহার উপজেলা নির্বাহী অফিসার এএফ এম ফিরুজ মাহমুদ, নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. শহিদুল ইসলাম, দোহার উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. জসিম উদ্দিন।

অন্য খবর  জয়পাড়া-বিলাশপুর সংযোগ সড়কের বেহাল দশা

মন্তব্য