মক্কায় হাজীদের জন্য বিশ্বের বৃহত্তম হোটেল!

239

নিউজ৩৯♦ পবিত্র মক্কা শরিফের মসজিদে হারাম থেকে মাত্র ২.২ কি.মি. দক্ষিণে মক্কার কেন্দ্রীয় অঞ্চল মানাফিয়াতে নির্মিত হচ্ছে হজযাত্রীদের সুবিধার জন্য বিশ্বের বৃহত্তম হোটেল।  বিখ্যাত মক্কা নগরীকে আরও আরামদায়ক করতে ১০ হাজার কক্ষ বিশিষ্ট হোটেলটি নির্মাণ করবে সৌদি সরকার। মক্কায় নির্মিতব্য ‘আবরাজ কুদাই’ (Abraj Kudai) নামের এ হোটেলটি হবে বিশ্বের সর্ববৃহৎ।

অ্যারাবিয়ান বিজনেস পত্রিকার সূত্রে দ্য গার্ডিয়ান জানিয়েছে, ২০১৭ সালে এটি উদ্বোধন করা হবে। হোটেলটি নির্মাণে ব্যয় হবে সাড়ে তিন বিলিয়ন ডলার। বাংলাদেশি টাকায় যার পরিমাণ ২৭ হাজার কোটি টাকার বেশি।

প্রতি বছর হজ করতে যাওয়া ২০ লক্ষাধিক হজযাত্রীর কথা মাথায় রেখেই এটি নির্মাণ করা হচ্ছে। প্রায় ১৪ লাখ বর্গমিটার আয়তনের হোটেলটিতে যে সংখ্যক লোক এক সঙ্গে অবস্থান করতে পারবেন তা ছোটখাটো একটি শহরের জনসংখ্যার সমান। সেখানে থাকবে শপিংমল, বড় আকারের কনভেনশন সেন্টার, ছাদের ওপর হেলিকপ্টার অবতরণের ব্যবস্থা, বাস স্টেশন এবং খাবার-দাবারের ব্যবস্থা।

হোটেলটির স্থপতি দার আল হান্দাসা জানিয়েছেন সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ও সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত এই হোটেলে থাকবে ৭০টি রেস্তোরাঁসহ আকর্ষণীয় অনেক কিছু। মোট ১২টি টাওয়ারের সমন্বয়ে হোটেলটি হবে। থাকবে হজযাত্রীদের নামাজ, খাওয়া দাওয়া এবং ঘুরে দেখার জন্য যথেষ্ট পরিমাণ জায়গা।

পত্রিকায় প্রকাশিত হোটেলের নকশায় দেখা গেছে, চারদিকে বড় বড় টাওয়ারগুলোর মাঝখানে থাকবে একটি বিশাল গম্বুজওয়ালা মূল টাওয়ার। মরু অঞ্চলের ঐতিহ্যবাহী দূর্গের মতো করে ডিজাইন করা হয়েছে এটি। ১০টি টাওয়ারের সুযোগ-সুবিধা হবে ফোরস্টার হোটেলের মতো এবং বাকি দু’টোতে থাকবে বিশেষ ব্যক্তিদের জন্য ফাইভস্টার সুবিধা। লন্ডন ভিত্তিক ফার্ম আরিন হসপিটালিটি হোটেলের কক্ষগুলোসহ ভেতরে ডিজাইনের দায়িত্ব পেয়েছে।

Comments

comments