মানিকগঞ্জে নবাবগঞ্জের যুবককে কুপিয়ে খুন

122

নিউজ৩৯♦ ঢাকার নবাবগঞ্জ থানার সীমান্তবর্তী মানিকগঞ্জের সিংগাইর এলাকায় রাজীব খান (৩০) নামের এক যুবককে কুপিয়ে ও পায়ের রগ কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।  রাজীব ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলার উত্তর বালুখণ্ডা গ্রামের আজমত আলীর ছেলে। তিনি চাঁদাবাজি ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত বলে দাবি করেছে পুলিশ। 

এদিকে, এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা দেখে ফেলায় সিংগাইর উপজেলার চারিগ্রাম এলাকার মজিবর দেওয়ানের ছেলে সজীব দেওয়ানকেও মারধর করে দুর্বৃত্তরা। গুরুতর আহত অবস্থায় সজীবকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। চাঁদাবাজি-সংক্রান্ত কারণেই এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ।

সিংগাইর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দুজ্জামান প্রত্যক্ষদর্শী সজীবের বরাত দিয়ে জানান, গতকাল রাতে নবাবগঞ্জের বরাইটা গ্রামের ও সিংগাইরের আটকানিয়া এলাকার মধ্যবর্তী স্থানে রাজীবকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপায় দুর্বৃত্তরা। পরে রাজীব মাটিতে লুটিয়ে পড়লে তাঁর পায়ের রগ কেটে দেয়। তখন ওই পথ দিয়ে যাওয়ার সময় সজীব হত্যাকাণ্ডের ঘটনা দেখে ফেলে। পরে দুর্বৃত্তরা সজীবকে ধাওয়া দিয়ে ধরে ফেলে এবং মারধর করে। সজীব চিৎকার দিলে তারা পালিয়ে যায়।

এর পর রাজীব ও সজীবকে উদ্ধার করে স্থানীয় ঘোনাপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাজীবকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে সজীবকে গুরুতর অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

হত্যাকাণ্ডের কারণ সম্পর্কে এখনো কিছু জানা যায়নি। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। এ ছাড়া ঘটনাটি মানিকগঞ্জের সিংগাইর ও ঢাকার নবাবগঞ্জ থানার সীমান্তবর্তী এলাকায় হওয়ায় স্থান নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত মামলা গ্রহণে বিলম্ব হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ওসি।

এদিকে, নবাবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহামুদুল হক নয়ন জানান, নিহত রাজীব এলাকায় চাঁদাবাজ-সন্ত্রাসী হিসেবে পরিচিত। তাঁর বিরুদ্ধে থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। কোন থানা এলাকায় ঘটনা ঘটেছে, তা নিশ্চিত হওয়ার পর মামলা করা হবে।

Comments

comments