একই দিনে তিন বিস্ময়

213

নিউজ৩৯.নেট
শেষ হল সূর্য গ্রহণ। আজ বাংলাদেশ সময় বেলা ১টা ৪১ মিনিটে শুরু হয়েছে হয়ে বিকাল ০৫টা ৫০মিনিটে শেষ হয়েছ। বাংলাদেশ সময় অনুযায়ী বিকেল তিনটা ৪৬ মিনিটের মধ্যে সূর্যের পূর্ণগ্রাস ঘটে। আর এর স্থায়িত্বকাল ছিল ২ মিনিট ৫০ সেকেন্ড। বিকেল ৫টা ৫০ মিনিটের পর থেকে সূর্য আবার পূর্বের অবস্থায় ফিরা শুরু করে। তবে বাংলাদেশের আকাশে সূর্যগ্রহণ দেখা যায়নি।
তাছাড়া একটি মাত্র দিনে তিনটি বিরল প্রাকৃতিক ঘটনার সাক্ষী থাকবে পৃথিবীবাসী। দিনে সূর্যগ্রহণে আধাঁর নামবে, রাতে সুপারমুন ছড়াবে দিনের আলো। আর ক্যালেন্ডারের হিসাবে এই দিনটিই সূর্যের বিষুবরেখার অতিক্রমকাল। ফলে দিন ও রাত্রি হবে সমান। সুপারমুন বা অতিকায় চাঁদ দেখা যাবে রাতের আকাশে। এই রাতে চাঁদ পৃথিবীর খুব কাছ থেকে সরে যাবে। আর এক পর্যায়ে সূর্য ও চাঁদ একই সরল রেখায় চলে আসবে। আর ফলে দিনের বেলায় সূর্যের আলো হয়ে আসবে ক্ষীণ ।চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যে মহাকাশে এই তিন ঘটনার একটি অন্যটিকে প্রভাবিত করবে না ঠিকই, কিন্তু একদিনে তিনটি ঘটনার সন্নিবেশ বিরল।
 অধিকাংশ সময়েই বছরে তিন থেকে ছয়টি সুপারমুন আকাশে দেখা যায়। ২০১৫ সালে মোট ছয়টি সুপারমুন দেখা যাবে। ইতিমধ্যেই আজ দুপুরে ঘটেছে সূর্যগ্রহণ। এর পরে আগামী অগস্টে, সেপ্টেম্বরে ও অক্টোবরে তিন দফায় সুপারমুন দেখা যাবে।
নতুন যখন চাঁদ আসে তখনই সূর্যগ্রহণের ঘটনা ঘটে। এই সময় চাঁদের প্রায় সবটাই ঢাকা পড়ে থাকে। আর অতিকায় চাঁদ যখন দেখা যায় তখন চাঁদ থাকে পূর্ণ থালার মতো।
আজ পৃথিবীর অক্ষ রেখা সুর্যরশ্মির উপর উলম্ব হয়ে অবস্থান করবে। এমনটা বছরে মাত্র দু’বারই ঘটে থাকে। ঠিক যে দুটি দিনে দিন-রাত্রি সমান হয়। এরপর এই রেখা কাত হয়ে পড়লে উত্তর গোলার্ধের দিন বড় হতে থাকবে। মহাকাশ বিজ্ঞানীদের হিসাবে এরপর দিন-রাত্রি সমানের দিনেই সূর্যগ্রহণ হবে ২০৫৩ ও ২০৭২ সালে।
নরওয়েরউত্তর স্যালবার্ড দ্বীপপুঞ্জ ওডেনমার্কের ফ্যারো দ্বীপপুঞ্জে দেখা গেছে পূর্ণগ্রাস।

অন্য খবর  উন্নত প্রযুক্তিসম্পন্ন রোবট বানানোর দাবি রুয়েট শিক্ষার্থীদের

Comments

comments