গলে যাচ্ছে ২০ ফুট উঁচু হিমবাহ

212

নিউজ৩৯♦ পূর্ব অ্যান্টার্কটিকার সবচেয়ে বড় হিমবাহ টটেন গ্ল্যাসিয়ার। ফাইল ছবি। ছবি: এএফপিজলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সমুদ্রের পানির উষ্ণতা বেড়ে গেছে। এতে পূর্ব অ্যান্টার্কটিকার সবচেয়ে বড় হিমবাহ গলতে শুরু করেছে। গত সোমবার বিজ্ঞানীরা এ তথ্য জানিয়েছেন।

 

বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে জানানো হয়, টটেন গ্ল্যাসিয়ার নামের ওই হিমবাহটির উচ্চতা ২০ ফুট (ছয় মিটার)। এটি ১২০ কিলোমিটার দীর্ঘ ও ৩০ কিলোমিটারেরও বেশি চওড়া।আগে বিজ্ঞানীদের ধারণা ছিল, ওই এলাকাটি উষ্ণ স্রোতের প্রভাবমুক্ত। তবে ওই অঞ্চল থেকে কিছুদিন আগে ভ্রমণ করে ফিরে আসা বিজ্ঞানীরা জানান, ওই এলাকার পানির উষ্ণতার পরিমাণ অনুমানের চেয়ে বেশি। হিমবাহের বরফ নিচে থেকে গলতে শুরু করেছে বলে তাঁরা ধারণা করছেন।

 

ভ্রমণফেরত বিজ্ঞানী দলের প্রধান স্টিভ রিনটল বলেন, ‘ভূ-উপগ্রহ থেকে পাওয়া তথ্যের মাধ্যমে আমরা জানতে পেরেছিলাম, হিমবাহটি সরু হতে শুরু করেছে। কিন্তু এটি কেন ঘটছে, তা জানা ছিল না।’

 

ভ্রমণকারী বিজ্ঞানী দলটি আরও জানতে পেরেছে, গ্রীষ্মকালে দক্ষিণ মেরুতে সমুদ্রের পানির সাধারণত যে তাপমাত্রা থাকে, এ হিমবাহটির আশপাশের পানি তার চেয়ে ১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেশি।

 

অন্য খবর  বরফের পাহাড় আচ্ছাদিত প্লুটো যেন রুপকথার ‘ওয়ান্ডারল্যান্ড’

স্টিভ রিনটলের ভাষ্য, হিমবাহটির কাছ থেকে তাপমাত্রা পরিমাপ করেছেন তাঁরা। ওই তাপমাত্রা হিমবাহ গলানোর জন্য যথেষ্ট। তিনি বলেন, হিমবাহটির কাছে উষ্ণ স্রোতোধারা পৌঁছানোর অর্থ হলো, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে সমুদ্রে যে পরিবর্তন হচ্ছে, এর ফলে পূর্ব অ্যান্টার্কটিকা হুমকির মুখে পড়ছে। এটি তারই একটি চিহ্ন।

 

তিনি বলেন, হিমবাহটি যে রাতারাতি গলে যাবে ও সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা ছয় মিটার বেড়ে যাবে—এমনটা নয়। তবে বিজ্ঞানীরা যেহেতু বোঝার চেষ্টা করছেন যে সমুদ্রের তাপমাত্রার পরিবর্তন বরফস্তূপের ওপর কেমন প্রভাব ফেলবে, সে ক্ষেত্রে এ গবেষণাটি গুরুত্বপূর্ণ।

 

গত মাসে প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, অ্যান্টার্কটিকার যে অঞ্চলে দ্রুত বরফ গলছে, সেখানে গত এক দশকে বরফ গলার মাত্রা তিনগুণ বেড়েছে। গত ২১ বছরের তথ্যের ভিত্তিতে ওই গবেষণা প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়েছে।

Comments

comments