জেগে উঠলো দোহার, তরুণ প্রজন্মের দোহার বাঁচাও আন্দোলন

789

নিউজ৩৯.নেট ♦ জেগে উঠেছে দোহার, জেগে উঠেছে দোহারের তরুণেরা, জেগে উঠেছে ঘুমন্ত বিবেক, জেগে উঠেছে দোহারের আলো-আশা। এই জেগে ওঠায় ভেসে যাবে অন্ধকার। দোহার রক্ষা পাবে নদী ভাঙ্গন থেকে, হবে উন্নত সমৃদ্ধ জনপদ।

দল-মত-নির্বিশেষে সকল শ্রেণীর দোহারের তরুণেরা শুধু ফেসবুক ইভেণ্ট (দোহার-নবাবগঞ্জে নদী ভাঙনরোধে তরুনদের ঐক্য প্রচেষ্টা। আপনি আসছেন তো…???)-এর ডাকে সবাই জড়ো হয়েছিল।অনুষ্ঠান এর শুরুতেই দোহারের তরুণেরা তার নিজ নিজ এলাকা থেকে নিজের অস্তিত্ব রক্ষার এ আন্দোলন এ জড়ো হতে থাকে। এর পর সবার অনুমতি ক্রমে শুরু হয় এক উজ্জ্বলতম ইতিহাস।

অনুষ্ঠান এর শুরুতেই নিউজ৩৯-এর সম্পাদক  তারেক রাজিব দোহারের অস্তিত্ব রক্ষায় কিছু প্রস্তাবনা তুলে ধরেন। এর পর শুরু হয় সবার মতামত গ্রহণ। এর মধ্যে ছিল স্কুল কলেজ এর ছাত্র এবং আপামোর জনসাধারণ নিয়ে বিশাল এক মানববন্ধন, অনশন, জনসমর্থন বাড়ানো, প্রশাসন এর চোখ ফেরানো, কেও কেও তাদের নিজেদের অভিজ্ঞতা শেয়ার করলেন।

এর পর  ইন্ডিপেনডেন্ট এর সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার শিমুল বাসার, আমাদের কিছু গা চমকানো অজানা তথ্য দিলেন, তিনি বলেন যে, পদ্মা ব্রিজ নির্মাণের কারণে যে নদী শাসন হবে তাতে যদি গাইড বাঁধ না দেয়া হয় তবে ভয়াবহ রকমের নদী ভাঙ্গনের মুখে পড়বে দোহার-নবাবগঞ্জবাসী। এমনকি সম্পূর্ণ রুপে বিলীন হয়ে পদ্মার আলাদা শাখা নদী জন্ম নিতে পারে বলে নদী বিশেষোজ্ঞ্রা জানিয়েছেন।  

এর পর আমাদের তরুন সমাজ এর বড় একটি অংশ শান্তিপূর্ণ মিছিলে অংশ গ্রহন করেন এবং যাতে বিপুল পরিমান জনসমর্থন পাওয়া যায়। আমাদের মিছিলটি জয়পাড়া স্কুল থেকে শুরু করে ওয়ান ব্যাংক হয়ে আবারো জয়পাড়া স্কুলে এসে শেষ হয়।

ইন্ডিপিন্ডেন্ট, আরটিভি, নিউজ৩৯, প্রিয় বাংলা, এশিয়া বার্তা এই অনুষ্ঠানটি কাভার করে।উল্লেখ্য দোহারের তরুন প্রজন্ম আবারো আগামী ৫ সেপ্টেম্বর বিকাল ৪ টায় জয়পাড়া স্কুল মাঠে আরও বিশাল সমাবেশ আহবান করেছে এবং সকলের সর্বাত্নক সহযোগীতা চেয়েছে।

Comments

comments