দোহারে নদী ভাঙন প্রতিরোধে জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্টের বিক্ষোভ

262

জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট দোহার উপজেলা শাখা’র উদ্যোগে পদ্মা নদীর ভাঙন প্রতিরোধ ও ভাঙন কবলিত দুঃস্থদের আশ্রয় ও পূর্নবাসনের দাবিতে দোহার উপজেলা জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট-এর উদ্যোগে দোহারের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

পদ্মার ভাঙন প্রতিরোধ এবং ভাঙন কবলিতদের পূর্নবাসনের দাবীতে আগামী ০৭অক্টোবর, ২০১৩ইং সোমবার দুপুর ১২.০০টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট স্মারকলিপি প্রদান করা হবে। উক্ত স্মারকলিপি প্রদানের সময় সকল সংগ্রামী জনতাকে অংশ গ্রহনের জন্য তারা আহ্বান জানান।

বিক্ষোভ কর্মসূচির মধ্যে গত ১১সেপ্টেম্বর, ১৫সেপ্টেম্বর, ০১অক্টোবর, ২০১৩ইং মঙ্গলবার বাহ্রা ঘাটে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ঢাকা জেলা সহ-সাধারণ সম্পাদক- আতিকুল ইসলাম টিটু, দোহার উপজেলা সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি আহ্বায়ক- ডাঃ ইসহাক আলী এবং যুগ্ম আহ্বায়ক- মেহেদী হাসান।

জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট, দোহার উপজেলা যুগ্ম আহ্বায়ক, মেহেদী হাসান অনুষ্ঠিত এ সকল সমাবেশে বক্তারা বলেন, পদ্মার ভয়ার করালগ্রাসে একের পর এক বাড়ি-ঘর, গ্রাম বিলীন হয়ে চলছে। নদী ভাঙন ক্রমান্বয়ে রুদ্রমূর্তি ধারণ করায় নদী সংলগ্ন অঞ্চল গুলোর এলাকাবাসী আতঙ্কিত হয়ে উঠছে উদ্বেগ আর উৎকন্ঠায়। অন্যদিকে মাত্র কয়েকদিনের ব্যবধানে ভাঙনের কবলে পড়ে রিক্ত, নিঃস্ব এবং সর্বশান্ত হয়ে উন্মুক্ত আকাশের নিচে ঠাঁই নিয়ে মাথা গোঁজার আশ্রয় খুঁজছে প্রায় ছয় শতাধিক পরিবার। কিন্তু এদের পাশে দাঁড়াবার কেউ নেই। উপরন্তু এদেরকে ব্যবহার করে নির্বাচন আর নিজেদের আখের গোছানোর কাজে লাগাচ্ছে শাসক-শোষক গোষ্ঠী। নির্বাচন আসলে তারা ভাঙন প্রতিরোধ করবে, ভূমিহীনদের খাস জমি দেবে এই সব প্রতিশ্রুতির ফুলঝুরি ছুটিয়ে ভোট আদায় করে। কিন্তু আজ অবধি এ ভাঙন প্রতিরোধে তারা কোন কার্যকর ব্যবস্থা এবং ক্ষতিগ্রস্থদের পূনর্বাসন করার জন্য যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করেনি। তাই এ সকল ক্ষতিগ্রস্থ মানুষ আন্দোলনে যেতে বাধ্য হচ্ছে। তাই এলাকাবাসীর প্রতি আমাদের উদাত্ত আহ্বান ভাঙন কবলিতদের আশ্রয় ও পূনর্বাসন এবং অবিলম্বে ভাঙন প্রতিরোধের জন্য দ্রুত কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি নিয়ে দল-মত নির্বিশেষে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলন সংগ্রাম গড়ে তুলুন।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

Comments

comments