মুমিনুল হক
বিজ্ঞাপন

বিসিএলে বাকি দুই রাউন্ড, ৪১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে নর্থ জোন, দুই পয়েন্ট কম নিয়ে দুইয়ে ইস্ট জোন। পরের ম্যাচেই মিরপুরে মুখোমুখি দুই দল। চতুর্থ রাউন্ডে খেলেননি ইস্ট জোনের মুমিনুল হক, এ ম্যাচ দিয়েই ফিরবেন। তাকিয়ে আছেন সে ম্যাচের দিকেই। তৃতীয় রাউন্ড শেষে বিসিএলের সর্বোচ্চ স্কোরার ছিলেন, তবে পরের ম্যাচ খেলার আগে তার চিন্তা-ভাবনাই ঘুরপাক খাচ্ছে শুধু দলের কথাই।

“একজন ব্যাটসম্যান হিসেবে তো সব সময় ইচ্ছে থাকে কোনো আসরে বড় বড় স্কোর করার”, মিরপুরে আজ মুমিনুল বলেছেন, “অনেক বেশি রান করার ইচ্ছে আমারও আছে। সেই চেষ্টাও করবো। তবে সবচেয়ে বড় ব্যাপার হলো, দল হিসেবে আমাদের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার খুব ভালো সম্ভাবনা আছে। দেখা যাক কী হয়।”

সর্বোচ্চ স্কোরের কথা তাই ভাবতেই চাননা, “না, এই জিনিসটা আমার মাথায় থাকবে না। আপনি যখনই সর্বোচ্চ রান করার চেষ্টা করবেন, চিন্তা করবেন, তার মানে হলো আপনি নিজের জন্য চিন্তা করছেন। এভাবে আগে চিন্তা করতাম, সেটা ভুল ছিলো, এখন বুঝি। সুতরাং আমি ওভাবে চিন্তা করে খেলবো না। দলকে চ্যাম্পিয়ন করানোর চেষ্টা করবো। একটা দল যখন চ্যাম্পিয়ন হবে, তখন দেখবেন যে তালিকায় তাদের ব্যাটসম্যানরাই উপরে থাকবে।”

অন্য খবর  এক মাসেই নেইমারের লাখো জার্সি বিক্রি

মুমিনুল নিজের ব্যাটের কথা চিন্তা না করুন, তবে উইন্ডিজ সফরের কথা অবশ্য মাথায় আছে। এমনিতে এখন শুধু টেস্টই খেলেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে, উইন্ডিজ সফরের আগে নিজেকে ঝালিয়ে নেওয়ার শেষ সুযোগ তাই বিসিএলের এই রাউন্ডই, “আমার কাছে মনে হয় যে, জাতীয় লিগ বলেন, বিসিএল বা যাই বলেন, বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের জন্য সবই গুরুত্বপূর্ণ। আমার তো শুধু টেস্ট খেলা হয়, সুতরাং আমি খুব মন দিয়ে খেলি।”

“ওয়েস্ট ইন্ডিজে যাওয়ার আগে এটাই (দুইটাই) হয়তো শেষ চার দিনের ম্যাচ। এরপর খেললেও খেলতে পারি, জানি না। ওই মানসিকতা নিয়েই খেলার চেষ্টা করবো, যেভাবে টেস্ট খেলি।”

মুমিনুলের মতো জাতীয় দলের বেশ কয়েকজন খেলবেন এই রাউন্ডে, প্রিমিয়ার লিগের শেষে যারা বিশ্রাম নিয়েছিলেন, তাদেরও কয়েকজনের খেলার কথা। প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঝাঁঝটা টের পাচ্ছেন মুমিনুলও, “আমার মনে হয় প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে। বিশেষ করে মিরপুরে যেটা হবে, সেটায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা একটু বেশিই থাকবে। এটা নিয়ে একটু উত্তেজনা কাজ করছে। জাতীয় দলের খেলোয়াড়রা থাকলে মনোযোগ দিয়ে খেলে। অন্যরাও ভালো করে খেলে।”

Comments

comments