নবাবগঞ্জ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনালে চ্যাম্পিয়ন নয়াবাড়ী একাদশ

239

নবাবগঞ্জ উপজেলার জয়কৃষ্ণপুর উদয়ন সংঘ আয়োজিত ফুটবল  টুর্ণামেন্টের ২০১২ ফাইনাল খেলা ২০ই জুলাই বিকাল ৫:৩০ মিনিটে জয়কৃষ্ণপুর-সুনাবাজু ফাতেমা রাণীর গীর্জা মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। ফাইনাল খেলাই অংশগ্রহণ করে নয়াবাড়ী একাদশ দোহার বনাম তাশুল্লা-বাংলাবাজার সোনালী সংঘ।
প্রথমার্ধের বেশ কয়েকবার আক্রমন করে গোল আদায় করে নেয় নয়াবাড়ী একাদশ। খেলার ২ মিনিটে দলের জন্য প্রথম গোল করেন ১০ নাম্বার জার্সি পরিহিত বিদেশি খেলোয়া  কাদিফ। প্রথম গোলের ১ মিনিট পর নিজেদের ভুলের কারনে দ্বিতীয় গোল করে ২-০ গোলে এগিয়ে যায় নয়াবাড়ী। প্রথমার্ধের তেমন ভাল কোন আক্রমন করতে পারেনি তাশুল্লা-বাংলাবাজার সোনালী সংঘ। খেলার ১৩ মিনিটে দলের জন্য তৃতীয় গোল করেন সেই ১০ নাম্বার জার্সি পরিহিত বিদেশি খেলোয়া কাদিফ।
দ্বিতীয়র্ধের ১১ মিনিটে চতুর্থ গেলটি করেন নয়াবাড়ী একাশের ক্যাপিটিন ১১ নাম্বার জার্সি পরিহিত খেলোয়ার রাজন। তাশুল্লা-বাংলাবাজার ২৩ মিনেটে মাথায় একটি সুন্দর শট বর্তমান জাতীয় দলের গোলরক্ষক বিল্পব বলটি পাঞ্চ করে বাইরে পাঠিয়ে দেন। খেলা শেষের ১ মিনিট আগে পঞ্চম গোল করে তাশুল্লা-বাংলাবাজার সোনালী সংঘকে  ৫-০ গোলো পরাজিত করে নয়াবাড়ী একাদশ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেন। ২ গোল করে শ্রেষ্ঠ খেলোয়ারের ট্রফি পান বিদেশি খেলোয়াড় কাদিফ।
পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা ছিল খন্দার রুহুল আমিন, চেয়ারম্যান খন্দার গ্রুপ ও পরিচালক বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইনডাসট্রিজ।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মোঃ মোজাম্মেল হক টিপু, মোতাহার হোসেন, চেয়ারম্যান জয়কৃষ্ণপুর ইউ,পি, ফরিদ আহমেদ, সাবেক চেয়ারম্যান জয়কৃষ্ণপুর ইউ,পি, আব্দুল কাদের সাবেক চেয়ারম্যান জয়কৃষ্ণপুর ইউ,পি, ,ডা:বাবুল মিয়া,ফাদার জেভিয়ার ফ্রান্সিস পিউরিফিকেশন,আবুল কাশেম, এ.কে. বুলবুল খাঁন, সাইদুর রহমান, কামাল হোসেন, মিলন মোল্লা,মেস্তাফা শহীদ, জোয়াকিম ডিকস্তা প্রমূখ।
খেলার ধারা বিবরণ করেন ফ্রান্সিস মিলন গমেজ এবং মোঃ লুৎফর রহমান ভূঁইয়া। 
চ্যাম্পিয়ন দলকে একটি ১০ সিএফটি ওয়ালটন ফ্রিজ  এবং রানার্স আপ দলকে একাট ২১” কালার টেলিভিশন প্রদান করা হয়।

Comments

comments