দোহার নবাবগঞ্জসহ সারা দেশে প্রশান্তির বৃষ্টি

105


চৈত্রের কাঠফাটা খরতাপের আপাত প্রশমন ঘটিয়ে দোহার নবাবগঞ্জসহ সারা দেশে শীতল পরশ ছড়িয়ে দেয় গতকাল শুক্রবার সকালের বৃষ্টি। এই বৃষ্টি ছিল দীর্ঘ প্রতীক্ষিত। প্রাণিকুলের কাঙ্ক্ষিত; জনস্বাস্থ্য ও কৃষির জন্য প্রয়োজনীয়।
আপাতপ্রশমন বলা হচ্ছে এই কারণে যে, বাংলার ঋতুচক্রের এই সময় প্রতিদিন বৃষ্টি হওয়ার কথা নয়। হবেও না। একসঙ্গে দেশের সর্বত্রও হবে খুব কম সময়ই।
তাই এ সময়ের নিয়মই হছে বৃষ্টি হবে। সঙ্গে থাকবে বজ্রগর্জন। প্রায় সব ক্ষেত্রেই অনুষঙ্গ হবে দমকা বাতাস। কখনো তা রূপ নেবে বিভিন্ন মাত্রার কালবৈশাখীর। এর ফলে খরতাপের প্রশমন হবে। শহর-নগরের পিচঢালা পথ ও কংক্রিটের বাড়িঘর শীতল হবে। কিছুক্ষণ পরেই আবার অনুভূত হবে গরম। তাপমাত্রা বাড়বে। আবার বৃষ্টি হবে। আবার ধরা হবে শীতল।
আবহাওয়ার অফিস জানিয়েছে, গতকালের মতো না হলেও আজ শনিবারও দেশের সাতটি বিভাগেরই দু-এক জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি ও বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। পাশাপাশি দিনের তাপমাত্রাও বাড়তে পারে ১ থেকে ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত।
বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি ও জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে বাংলার ঋতুবৈচিত্র্যের ওই চিরাচরিত নিয়মকানুন অনেকটাই বদলে গেছে। বৃষ্টিপাত, ঝড়-ঝঞ্ঝা এখন বেশ কিছুটা অনিয়মিত। ফলে বৃষ্টির জন্য প্রায়ই প্রতীক্ষা দীর্ঘতর হয়। আবার কখনো অব্যাহত ও অতিবৃষ্টি হয়ে ওঠে বিপর্যয়কর।

অন্য খবর  আদালতে হাজিরা দিলেন খালেদা, সময় আবেদন মঞ্জুর

Comments

comments