৩৬ ঘন্টা পরেও সন্ধান মেলেনি নিখোঁজ দুই শিক্ষার্থীর

442

দোহার উপজেলার মৈনট ঘাটে পদ্মায় নৌকাডুবিতে নিখোঁজ এক শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করা হলেও এখনো নিখোঁজ রয়েছেন দুইজন। গতকাল বুধবার সকাল ১০টায় মহিমের মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল। এখনও নিখোঁজ রয়েছে সালমান (২৪) ও সুপ্রিয় (২২) নামে দুই শিক্ষার্থী ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা থেকে দোহারের মৈনট ঘাটে বেড়াতে আসা পাঁচ বন্ধু পদ্মা নদীতে গোসল করতে নামে। দুই ছাত্র অপূর্ব ও ফাহিমকে স্থানীয়রা উদ্ধার করলেও স্রোতের টানে ডুবে যায় সালমান, সুপ্রিয় এবং মহিম।

সুপ্রিয় ঢালী, পিতাঃ নাসির উদ্দিন ঢালী তার গ্রামের বাড়ী মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার শ্রীনগর গ্রামে। সুপ্রিয় মিরপুর কমার্স কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।

নিখোঁজ আরেকজন সালমান(২০)।পিতাঃ ডক্টর মো, জালাম উদ্দিন তার গ্রামের বাড়ী ২৭ টঙ্গী গাজিপুর।

সারাদিন ফায়ার সার্ভিস, কোষ্টগার্ড এবং নৌবাহিনীর ডুবুরী দল চেষ্টা করেও সালমান এবং সুপ্রিয় কারোই কোন সন্ধান করতে পারেনি। পরে সন্ধ্যা ঘনিয়ে আসায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কে এম আল- আমিন এবং ওসি সিরাজুল ইসলাম শেখ ঘটনাস্থলে গিয়ে গতকালের মতো উদ্ধার অভিযান সমাপ্তি ঘোষনা করেন।

অন্য খবর  লোডশেডিঙে বিপর্যস্ত নয়াবাড়ী

সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত আজ সকাল থেকে আবার উদ্ধার অভিযান চলছে।

দোহার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সিরাজুল ইসলাম শেখ জানান, সকালে ঘটনাস্থল থেকে দুই কিলোমিটার দূরে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল মহিমের মরদেহ উদ্ধার করে। সে ঢাকার মোহাম্মদপুর এলাকার শাহ আলমের ছেলে। এখনও নিখোঁজ দুই শিক্ষার্থীর সন্ধানে অভিযান চলছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কে এম আল-আমিন নিউজ থার্টিনাইনকে জানান, নিখোঁজদের সন্ধান না পাওয়া পর্যন্ত উদ্ধার কাজ চলবে।

Comments

comments