স্বাস্থ্য সেবাকে মানুষের আরো কাছে নিতে হবে: সালমা ইসলাম এমপি

253

স্বাস্থ্য সেবাকে গ্রামের মানুষের দোরগোড়ায় নিয়ে যেতে হবে। যাতে জনগণ সহজেই চিকিৎসা সেবা পেতে পার। সেই জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সকল চিকিৎসককে দায়িত্বশীল হয়ে কাজ করতে হবে। মঙ্গলবার সকালে ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মুক্তিযোদ্ধা কেবিন, ডিজিটাল এক্সরে মেশিন, ডেন্টাল ইউনিট ও নার্সেস কর্ণার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সাবেক মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম এমপি এ কথা বলেন।

একই দিন সাংসদ সালমা ইসলাম নবাবগঞ্জ উপজেলা সদর হাসপাতালের পাশে মেহেনাজ ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনষ্টিক সেন্টার উদ্বোধন এবং দোহার নবাবগঞ্জ কলেজে ছাত্রলীগ আয়োজিত বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছার ৮৭তম জম্ম বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় অংশ নেন।

হাসপাতালের অনুষ্ঠানে সালমা ইসলাম বলেন, গ্রাম অঞ্চলের সাধারণ মানুষ যাতে সেবা বঞ্চিত না হয় সে বিষয়ে সর্তক হয়ে চিকিৎসকদের কাজ করতে হবে। হাসপাতালের দায়িত্ব রেখে প্রাইভেট ক্লিনিকে সেবা দেওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। এছাড়া পরীক্ষা-নিরীক্ষাসহ এ্যাম্বুলেন্স সেবা পেতে রোগীদের প্রতি সদয় থাকতে হবে। দালাল চক্র যাতে রোগীকে হয়রানি না করতে পারে সে বিষয়ে কঠোর নজরদারি রাখা প্রয়োজন। প্রাইভেট ক্লিনিকগুলোকে সঠিক চিকিৎসক ও নার্স দ্বারা পরিচালিত করতে হবে। মাঝে মাঝেই তাদের হাতে রোগী মারা যায়। বিষয়টি আমলে নিয়ে স্বল্প খরচে গরীব মানুষকে সেবা দিতে মানসিকতা তৈরী করতে হবে।

অন্য খবর  নবাবগঞ্জে ভন্ড ফকিরের অপচিকিৎসায় প্রবাসীর মৃত্যু

বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিনী বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছার ৮৭তম জম্ম বার্ষিকীতে দোহার নবাবগঞ্জ কলেজ ছাত্রলীগ আয়োজিত আলোচনা অনুষ্ঠানে অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম বলেন, স্বাধীনতার স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু স্ত্রী হিসেবে তিনি ছিলেন দেশ ও মানুষের নির্ভরযোগ্য জায়গা। তিনি মায়ের মতই সকলকে ¯েœহ করতেন। বঙ্গবন্ধুর সব অনুসারি ছিলো তার কাছে সন্তানতুল্য।

এসময় আওয়ামীলীগের জাতীয় কমিটির সদস্য আব্দুল বাতেন মিয়া, উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা শাকিল আহমেদ, স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. শহিদুল ইসলাম. আরএমও ডা. রবিউল হোসেন, ওসি মোস্তফা কামাল, ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আনোয়ার হোসেন, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোশারফ হোসেন দিলু, ডেপুটি কমান্ডার মোশারফ হোসেন খান, আব্দুল মজিদ, জাতীয় পার্টির উপজেলা সদস্য সচিব শরফুদ্দিন আহমেদ শরীফ, সাবেক সভাপতি হুমায়ন কবির, ঢাকা জেলা যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জুয়েল আহমেদ, উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক মো. জালাল উদ্দিন , ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াদুদ মিয়া, আলহাজ্ব ইব্রাহীম খলিল, জাতীয় পার্টির যুগ্ম আহবায়ক খলিলুর রহমান, জাহাঙ্গীর চোকদার, একেএম আব্দুল হালিম, এমএ মজিদ, আসাদুজ্জামান চৌধুরী রানা, আনোয়ার হোসেন মোড়ল, আয়নুল চৌধুরী, আসমা আক্তার রুমি, ইয়াছিন রবিন, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতা ইমরান হোসেন, ঢাকা জেলা সভাপতি ইকরামুন্নবী ইমু, নবাবগঞ্জ উপজেলা সভাপতি এসএম সাইফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান রনি, যুবসংহতির বোরহান হোসেন, স্বেচ্ছাসেবক পার্টির মো, সেলিম, অমল দাস, ছাত্র সমাজের খলিল দেওয়ান প্রমুখ।

অন্য খবর  জমে উঠেছে দোহার নবাবগঞ্জের ঈদ কেনাকাটা

Comments

comments