স্ত্রী হত্যার দায়ে গাজীপুরে স্বামীর যাবজ্জীবন

174

গাজীপুরে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীকে যাবজ্জীন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। সোমবার সকালে গাজীপুরের জেলা ও দায়রা জজ এ কে এম এনামুল হক এ রায় ঘোষণা করেন।

রায়ে একই সঙ্গে দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়। যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামির নাম শরবেশ আলী (৩৬)। তিনি টাঙ্গাইলের বাগবাড়ি এলাকার কাসেম আলীর ছেলে।

আদালত সূত্র জানায়, দুই সন্তানের জনক ভ্যানচালক শরবেশ আলী তার স্ত্রী শাহিদা বেগমকে (৩০) নিয়ে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার মৌচাক আমবাগানের পাশে একটি বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। স্ত্রী স্থানীয় একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করতেন। স্বামী শরবেশ প্রায় সময় স্ত্রীর নিকট টাকা-পয়সা চাইতেন। টাকা না দিলে তাদের মধ্যে ঝগড়া হতো। ২০১৪ সালের ২ এপ্রিল রাতে স্বামী শরবেশ আলী তার স্ত্রীর কাছে আবার টাকা চান। স্ত্রী তাকে টাকা দিতে অস্বীকার করেন। একপর্যায়ে শরবেশ আলী ক্ষুব্ধ হয়ে স্ত্রীকে বিছানায় বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করে পালিয়ে যান। খবর পেয়ে মৌচাক পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তর জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় নিহতের মামা ফরহাদ হোসেন বাদী হয়ে শরবেশ আলীকে প্রধান আসামি করে কালিয়াকৈর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ শরবেশ আলীকে গ্রেপ্তার করে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আজহারুল ইসলাম শরবেশ আলীকে অভিযুক্ত করে ওই বছরের ৭ জুলাই গাজীপুর আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

অন্য খবর  শপথ নিলেন নতুন ৮ বিচারপতি

মামলায় আটজন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়। দীর্ঘ শুনানি শেষে সোমবার আদালত এ রায় ঘোষণা করেন। রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন পিপি অ্যাডভোকেট হারিছ উদ্দিন আহমদ এবং আসামিপক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট তমিজ উদ্দিন আকন।

 

Comments

comments