সুখী থাকার জন্য ফেইসবুক ত্যাগ করুন

521
Facebook Logo

সব সময় নানা কারণে মানসিক চাপে রয়েছেন? সামাজিকতায় সমস্যা হচ্ছে? এসব সমস্যার অন্যতম কারণ ফেসবুকের মতো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম। আর গবেষকরা জানাচ্ছেন, যারা ফেসবুকের মতো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মাত্রাতিরিক্ত ব্যস্ত তারা এসব ত্যাগ করলে ব্যাপকভাবে উপকৃত হবেন।

গবেষকরা জানিয়েছেন, মাত্র এক সপ্তাহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম থেকে দূরে থাকলেই তাদের মানসিক সন্তুষ্টি বা সুখের মাত্রা অন্যদের থেকে বেশি হবে। ডেনমার্কের হ্যাপিনেস রিসার্চ ইন্সটিটিউট এক গবেষণায় এ তথ্য জানতে পেরেছে।

এ গবেষণায় মোট ১,০৯৫ জনকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। এতে তাদের দুটি ভাগে বিভক্ত করা হয়। তাদের এক ভাগ ব্যক্তিরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার বন্ধ করে দেয়। অন্য ভাগ তা ব্যবহার করতে থাকে।

এ  বিষয়ে গবেষণা প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী মেইক উইকিং বলেন, ‘আমরা গবেষণায় ফেসবুকের দিকে দৃষ্টি নিবদ্ধ রাখি কারণ এটি বিভিন্ন বয়সের মানুষের মধ্যে সবচেয়ে বেশিসংখ্যক মানুষ ব্যবহার করে।’

এক সপ্তাহ পর দেখা যায়, যারা ফেসবুক ব্যবহার করা থেকে বিরত আছেন তাদের ৮৮ শতাংশ নিজেকে ‘সুখী’ বলে অভিহিত করেন। অন্যদিকে যারা ফেসবুক ব্যবহার করা চালিয়ে গিয়েছেন তাদের মধ্যে এ সংখ্যা কম (৮১%) দেখা যায়।

অন্য খবর  স্বপ্নযাত্রা অব্যাহত রাখবে ক্রোয়েশিয়া?

গবেষণার ফলাফলে গবেষকরা জানান, যারা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ত্যাগ করেছেন তারা সামাজিক জীবনে ভালো ফলাফল পেয়েছে এবং বিভিন্ন বিষয়ে মনোযোগ নিবদ্ধ করার দক্ষতা বেড়েছে। অন্যদিকে বাকি মানুষেরা, যারা ফেসবুক ব্যবহার অব্যাহত রেখেছেন, তাদের সামাজিকতায় কোনো পরিবর্তন হয়নি।

সামগ্রীকভাবে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের মাঝে সুখের মাত্রা ৩৯ শতাংশ কমে বলে জানান গবেষকরা। আর তাই মানসিক সন্তুষ্টি ও সুখের মাত্রা বাড়ানোর জন্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার থেকে বিরত হওয়ার বা ব্যবহার সীমিত করার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

Comments

comments