সম্পর্ক ছিন্ন হবার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যা করা উচিত নয়

225

দীর্ঘদিনের সম্পর্ক ভেঙে যাওয়া নিঃসন্দেহে হতাশার। এ সময় মিশ্র অনুভূতি কাজ করে। তবে প্রতিহিংসা, রাগ, জেদ অথবা মন খারাপ থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এমন কোনও কাজ করবেন না, যেটা অন্যের কাছে উপহাস অথবা বিরক্তির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। এ ধরনের কাজ নিজের জন্যও ভালো ফল বয়ে আনে না। দ্রুত হতাশা থেকে বের হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে হলে এগুলো এড়িয়ে চলা জরুরি। জেনে নিন সম্পর্ক ভাঙলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোন কাজগুলো একদমই করবেন না-

রাগের বশবর্তী হয়ে ব্যক্তিগত চ্যাটের স্ক্রিনশট অথবা অন্যান্য ব্যক্তিগত তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করবেন না। এটি অন্যের কাছে আপনার গ্রহণযোগ্যতা কমাবে।

ফেসবুক বা অন্যান্য যোগাযোগ মাধ্যমে প্রাক্তন সঙ্গীর সঙ্গে প্রকাশ করা মুহূর্তগুলো বারবার দেখবেন না। এটি আপনার মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতির কারণ হবে। মনে রাখবেন, বর্তমান পরিস্থিতি থেকে আপনাকে বের করতে পারবেন কেবল আপনিই!

আপনার হতাশা আপনার কাছের মানুষগুলোর কাছে যতটা গুরুত্বপূর্ণ, সবার কাছে কিন্তু ততটা নয়! তাই নিজের হতাশার কথা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ না করাই ভালো। বারবার নিজের অনুভূতি ও হতাশার ব্যাপারে প্রকাশ করতে থাকলে সেটা অন্যের বিরক্তির কারণ হয়ে দাঁড়াবে।

অন্য খবর  জীবন নাটকের আসল নায়ক-নায়িকা হচ্ছেন বাবা মা

হতাশা দূর করার জন্য বন্ধুদের সঙ্গে সময় কাটাতে পারেন। ঘুরতে যেতে পারেন দূরে কোথাও অথবা সিনেমা দেখতে পারেন। তবে এসব মুহূর্তের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করবেন না। কারণ এই ধরনের পোস্টে কেউ নেতিবাচক মন্তব্য করে বসলে সেটা আপনার জন্য হিতে বিপরীতই হবে।

প্রাক্তন সঙ্গী আপনার প্রোফাইল ও কর্মকাণ্ড দেখছে- এই চিন্তা মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলুন। কারণ এই চিন্তা থেকে তাকে দেখানোর জন্য বিভিন্ন পোস্ট দিতে ইচ্ছে করবে, যা আপনার জন্যই ক্ষতির কারণ হবে।

প্রাক্তন সঙ্গী ও তার আশেপাশের মানুষের প্রোফাইল দেখবেন না। এতে করে আরও হতাশ হয়ে পড়বেন।

সবচেয়ে বড় কথা, নিজের মতো সময় কাটান। এ সময় শিশুসুলভ আচরণ পরিহার করা জরুরি। আপনি খুব কষ্টে আছেন, সেটা যেমন প্রকাশ করবেন না, তেমনি খুব ভালো আছেন সেটাও দেখানোর দরকার নেই। আপনি যেমন, ঠিক তেমনই থাকার চেষ্টা করুন।

 

 

Comments

comments