শ্রীনগরের বাঘড়ায় রাস্তার কাজে অনিয়ম

181
বাঘড়া

শ্রীনগরে বাঘড়া ইউনিয়নের জাহানাবাদ-বাঘড়া বাজার সড়কের প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হলেও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান “মেসার্স কাজী কন্সট্রাকশান”  এখনো রাস্তার কাজ শেষ করতে পারেনি।

বাঘড়া ইউনিয়নের জাহানাবাদ-বাঘড়া বাজার সড়কটি ইউনিয়নের উত্তরাঞ্চলের জন্য অত্যন্ত গুরত্বপূর্ণ। বিশেষকরে,ছত্রভোগ,নলট্যাক এবং জাহানাবাদের সাথে বাঘড়া বাজারের সংযোগ সড়ক এটি।প্রতিদিন এই অঞ্চলের লোকজন তাদের উৎপাদিত শাক-সবজি নিয়ে এই রাস্তা দিয়ে বাজারে গমন করে।

রাস্তা উদ্ধোধনের তিন মাসের মধ্যেই ভেঙে পড়ে প্রায়  চারটি স্থান।এরমধ্যে, উপজেলার সর্ববৃহত কবরস্থান “সালাম খানের কবরস্থানের” দেয়াল ঘেষে ভেঙে পড়েছে প্রায় ২৫ মিটার রাস্তা।যারফলে,কবরস্থানের সীমানা দেয়াল রয়েছে অত্যন্ত ঝুকির মধ্যে। ছোট ছোট আরো কিছু স্থান ভেঙে যান চলাচল বিঘ্নিত হচ্ছে,নাকাল হচ্ছে স্থানীয় বাসিন্দারা।এছাড়া,দুর্ঘটনার সম্ভাবনা তো দিন দিন বেড়েই চলছে।

এ বিষয়ে বাঘড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম এর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, “অনেক আশা নিয়ে তিনি রাস্তার কাজটি দিয়েছিলেন মেসার্স কাজী কন্সট্রাকশানকে ।নিজ দলীয়(আওয়ামীলীগ)  লোকের দ্বারা কাজ করালে কাজের মান বিনষ্ট হবে ভেবে তিনি কাজ দেন এমন এক ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে যার কন্ট্রাকটর বিএনপি করে। তার উদ্দেশ্য ছিল যাতে কাজের মান ভাল হয়।

অন্য খবর  ইসলাম অবমাননা করে ফেসবুকে কমেন্ট, ডিএন কলেজের ছাত্র গ্রেপ্তার

তিনি আরো বলেন, রাস্তার কাজ শেষ হওয়ার পরপরই তীব্র বৃষ্টিপাতের ফলে রাস্তার পার ধ্বসে যায়।যার কারন হিসেবে তিনি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের নিন্মমানের কাজকে দায়ী করেন। এছাড়া গোরস্তানের পানি নির্গমনের জন্য ড্রেনেজ না থাকাও রাস্তা ধ্বসের আরো একটি গুরত্বপূর্ণ কারন বলে তিনি মনে করেন।”

তবে তিনি আশা প্রকাশ করেছেন যে,বৃষ্টিপাতের মওসুম শেষ হলেই তিনি রাস্তা সংস্কারের কাজে হাত দিবেন।আগামী তিন চার মাসের আগে তা করা এই মুহুর্তে সম্ভব না বলেও জানিয়েছেন তিনি।

Comments

comments