রাজধানীর হাজারীবাগের একটি নির্মাণাধীন ভবনে এক তরুণীকে গণধর্ষণ করা হয়েছে। ১৮ বছরের ওই তরুণী একটি কারখানার শ্রমিক। পুলিশ ধর্ষণের এ ঘটনায় তরুণীর প্রেমিক রনি (২১)সহ আরো দুজনকে আটক করেছে। তারা হলো-নাজির (২০) ও সাগর (২১)। পুলিশ জানিয়েছে, ওই তরুণীর সঙ্গে রনির প্রেমের সম্পর্ক ছিল। শুক্রবার রাত ৯টার দিকে রনি হাজারীবাগ বালুর মাঠ কামাল সদর রোডের একটি নির্মাণাধীন ভবনে নিয়ে যায় ওই তরুণীকে। সেখানে রনি প্রথমে তরুণীকে ধর্ষণ করে। এরপর রনির সঙ্গে থাকা নাজির তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

রনি ও নাজির ধর্ষণের পর তাদের পাহারায় থাকা আরেক বন্ধু সাগর তরুণীকে ধর্ষণ করতে চায়। তখন তরুণীর সঙ্গে সাগরের ধস্তাধস্তি শুরু হয়। এক পর্যায়ে সাগর তরুণীকে ধাক্কা দিয়ে নিচে ফেলে দেয়। এরপর তারা তিনজন মেয়েটিকে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। এসময় তরুণী কান্নাকাটি করতে থাকে। তার কান্নাকাটির শব্দ শুনে আশেপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে আসে। পরে তারা থানায় ফোন দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তরুণীকে উদ্ধার করে। আর তরুণীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে রাতেই অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত ওই তিন যুবককে আটক করে। হাজারীবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আকরাম আলী জানান, ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ তরুণীকে উদ্ধার করে তার শারীরিক পরীক্ষার ব্যবস্থা করেছে। যাদের আটক করা হয়েছে তাদের মধ্যে প্রেমিক রনি ও তার বন্ধু নাজির ধর্ষনের কথা স্বীকার করেছে।

অন্য খবর  দিনাজপুরে এক প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণ

Comments

comments