রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে রসুন

130

একটি বড় সমস্যার নাম ‘উচ্চ রক্তচাপ’। একটা সময় শুধু বয়স্কদের এই রোগ দেখা দিলেও বর্তমানে অনেক কম বয়সী মানুষও উচ্চ রক্তচাপে আক্রান্ত হয়ে পড়ছেন। আর এই সমস্যা সমাধানে আমরা সাধারণত শুধু ওষুধই গ্রহণ করে থাকি। তবে ওষুধ ছাড়াও উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে কিছু প্রাকৃতিক প্রতিকার অনেকে গ্রহণ করেন। এর মধ্যে অন্যতম রসুন। রসুনে অ্যালিসিন নামক উপাদান রয়েছে যা রক্তচাপ হ্রাস করতে সাহায্য করে। আসুন জেনে নেই রসুনকে ব্যবহার করে কিভাবে উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করা যায়।

১। কাঁচা রসুন
উচ্চ রক্তচাপ কমাতে রসুন বেশ কার্যকর। এক-দুই কোয়া রসুন সরাসরি চিবিয়ে খেতে পারেন। এছাড়া ১ থেকে ১.৫ গ্রাম কাঁচা বা শুকনো রসুন প্রতিদিন খেতে পারেন।

২। গার্লিক ফ্লেভারড অলিভ অয়েল
গার্লিক ফ্লেভারড অয়েল খুব সহজে তৈরি করতে পারেন। মাঝারি আঁচে কিছু পরিমাণ রসুন কুচি ৩-৫ মিনিট ভাজুন অলিভ অয়েলে। তারপর আঁচ কমিয়ে দিন, তেল বুদবুদ ওঠা পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। অল্প আঁচে ১৫ মিনিট রাখুন। তারপর চুলা বন্ধ করুন। ব্যস তৈরি হয়ে গেলো গার্লিক ফ্লেভারড অয়েল।

অন্য খবর  খর্বকায়দের হৃদ্‌রোগের ঝুঁকি বেশি

৩। গার্লিক পাউডার
প্রতিদিন ৬০০ থেকে ৯০০ মিলিগ্রাম গার্লিক পাউডার গ্রহণ ৯% থেকে ১২% পর্যন্ত রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে। ৬০০ মিলিগ্রাম গার্লিক পাউডারে ৩.৬ মিলিগ্রাম অ্যালিসিন এবং ৯০০ মিলিগ্রাম গার্লিক পাউডারে ৫.৪ মিলিগ্রাম অ্যালিসিন রয়েছে।

৪। গার্লিক টি
এক কাপ পানি গরম হয়ে এলে এতে এক-তিন কোয়া রসুনের কুচি দিয়ে দিন, এটি কিছুক্ষণ জ্বাল দিন। ৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। আপনি চাইলে এতে আধা চা চামচ মধু মেশাতে পারেন। এই চা প্রতিদিন পান করুন।

৫। রান্নায় রসুনের ব্যবহার
প্রতিদিনের রান্নায় রসুন ব্যবহার করুন। অ্যালিসিন খুবই সংবেদনশীল উপাদান। তাই রান্নায় রসুন ব্যবহারের আগে রসুন কুচি বা থেঁতলে ১০ মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর খাবারের ব্যবহার করুন। এতে রসুনে থাকা অ্যালিসিন খাবারের সাথে ভালোভাবে মিশে যাবে। এছাড়া সালাদে রসুন পাতলা করে কেটে ব্যবহার করতে পারেন।

 

 

Comments

comments