স্টিফেন হকিং, বিশ্ববিখ্যাত পদার্থবিজ্ঞানী। জ্ঞান-বিজ্ঞানে আগ্রহ আছে অথচ তার নাম শোনেনি এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কৃষ্ণ গহ্বর এবং আপেক্ষিকতা তত্ত্ব দিয়ে বিশ্বজুড়ে পরিচিত তিনি। কিন্তু তিনিই পাননি নোবেল পুরস্কার। কি এমন কারণ যার জন্য নোবেল পায়নি এই বিজ্ঞানি।

মহাবিশ্বের অপার তথ্য ছিল যার নখদর্পণে, সেই কিংবদন্তি বিজ্ঞানীর নোবেল না পাওয়ার পিছনে ছিল একটাই কারণ— সারা জীবন ধরে যে থিওরিগুলোর কথা বার বার বলে এসেছেন তিনি, তা পরীক্ষিত সত্য বলে প্রমাণ করার মতো সূক্ষ্ম প্রযুক্তিই যে উদ্ভাবিত হয়নি এখনও।

কেননা, নোবেল উইলে পরিষ্কার ভাবে আলফ্রেড নোবেল লিখে গেছেন যে, পদার্থবিদ্যার আবিষ্কার যদি পরীক্ষা নিরীক্ষায় প্রমাণ করা যায়, তা হলেই তাকে পুরস্কার দেয়া হবে। আর সেই প্রমাণটাই করে যেতে পারেননি স্টিফেন হকিং।

যেমন, স্টিফেন হকিং এর ‘ব্ল্যাক হোলও মরতে পারে’ তত্ত্ব এখন তত্ত্বীয় পদার্থ বিজ্ঞানে ব্যাপকভাবে মেনে নেয়া হয়েছে। তবে তার এই তত্ত্বটি যাচাই করার কোনো উপায় নেই।

মূলত হকিংয়ের সব চিন্তাভাবনা ছিল খাতায় কলমে বন্দি। বাস্তব প্রয়োগের রাস্তা সেখানে অবরুদ্ধ। তাই সাফল্যের চূড়ায় পৌঁছলেও নোবেলের স্বাদ থেকে দূরেই থেকে গিয়েছেন তিনি। তবে নোবেল পুরস্কার ছাড়া আর সব পুরস্কার ও স্বীকৃতি তিনি পেয়েছেন।

অন্য খবর  আর্থিক ও যৌন কেলেঙ্কারি: স্থগিত হলো চলতি বছরের সাহিত্যে নোবেল

Comments

comments