‘মাদকের ব্যাপারে সরকার জিরো টলারেন্স নীতি নিয়েছে’ – স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল

    93

    জোবায়ের শরিফ,নিউজ৩৯ঃ
    ঢাকা জেলার নবাবগঞ্জ থানা কমিউনিটি পুলিশিং সেল কর্তৃক আয়োজিত “সন্ত্রাস, জঙ্গি ও মাদক বিরোধী সমাবেশ এবং নবাবগঞ্জ থানার ১০০ জন মাদক ব্যবসায়ীর স্বাভাবিক জীবনে প্রত্যাবর্তন” অনুষ্ঠান ২৫ আগস্ট ২০১৯ রবিবার বিকালে নবাবগঞ্জ সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে। নবাবগঞ্জ থানা রোববার সন্ধ্যা ৭টায় জঙ্গি ও মাদকবিরোধী এই সমাবেশের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে  স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘মাদকের ব্যাপারে সরকার জিরো টলারেন্স নীতি নিয়েছে। আমাদের সমাজ, আমাদের ধর্ম মাদককে প্রশ্রয় দেয় না। আমরা কোনো মাদক তৈরি করি না, তবুও আমরা মাদকের আগ্রাসনে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি। সমাজ থেকে সন্ত্রাস, জঙ্গি ও মাদক নির্মূল করে আমরা ২০৪১ সালের মধ্যে নতুন প্রজন্মের কাছে একটি শান্তিময় বাংলাদেশ উপহার দিয়ে যেতে চাই।’

    বাংলাদেশে কোনো মাদক তৈরি হয় না, তবে এর আগ্রাসনে দেশ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। আসাদুজ্জামান খান বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ডাকে দেশের জনগণ সাড়া দিয়ে জঙ্গি দমনে এগিয়ে এসেছিল। বাংলাদেশের মানুষ কোনো দিনই জঙ্গিবাদকে আশ্রয় দেয়নি। বাংলাদেশ কোনো দিনই সন্ত্রাসকে আশ্রয় দেয়নি।এসময় মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা জননেতা আসাদুজ্জামান খান কামাল এম.পি.ঢাকা জেলার নবাবগঞ্জ থানা ভবনসহ একাধিক ভবন উদ্বোধন করেন ।

    অন্য খবর  সন্তান সচেতন করে গড়তে মায়ের ভূমিকাই বেশি;সালমা ইসলাম এমপি

    অনুষ্ঠানের ‘গেস্ট অব অনার’ হিসেবে বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা ও ঢাকা-১ আসনের সাংসদ সালমান এফ রহমান। তিনি বলেন, নির্বাচনের আগে যে ওয়াদা দেওয়া হয়েছে, তা বাস্তবায়ন করা হবে। গ্রামীণ রাস্তাঘাট উন্নয়নের জন্য এ অঞ্চলে এক হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

    ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার শাহ মিজান শাফিউর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পুলিশ ইন্সপেক্টর জেনারেল মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী, ডিআইজি ঢাকা রেঞ্জ হাবিবুর রহমান, ঢাকা জেলা প্রশাসক আবু ছালেহ মোহাম্মদ ফেরদৌস খান, ঢাকা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মাহবুবুর রহমান। ঢাকা জেলা দক্ষিণ অপরাধ (তদন্ত) এএসপি মাসুম ভূঁইয়ার এই অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন।দোহার থানার ওসি সাজ্জাদ হোসেন এবং নবাবগঞ্জ থানার ওসি মোস্তফা কামাল সার্বিক নিরাপত্তা বিধান করেন।

    Comments

    comments