ভিসা না পাওয়ায় হজে যেতে পারেননি ৭৫৪ জন

527
ভিসা না পাওয়ায় হজে যেতে পারেননি ৭৫৪ জন

ভিসা না পাওয়ায় হজে যেতে পারেননি ৭৫৪ জন হজযাত্রী। ১ লাখ ১ হাজার ৪ জন  যেতে পেরেছেন। অথচ চলতি বছর ১ লাখ ১ হাজার ৭৫৮ জন বাংলাদেশির হজ পালনের উদ্দেশ্যে সৌদি আরবে যাওয়ার কথা ছিল। এদিকে, সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) মধ্যরাত পর্যন্ত জেদ্দায় ২৭ জন বাংলাদেশি হজযাত্রীর মারা গেছেন। তাদের মধ্যে ১৯ জন পুরুষ ও ৮ জন নারী।  হজ অফিস সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। উল্লেখ্য, আগামী ১১ অক্টোবর পবিত্র হজ পালিত হবে।

এদিকে, ১৫টি হজ ফ্লাইট বাতিলের কারণে ছয় হাজারের বেশি হজযাত্রীকে যথা সময়ে জেদ্দায় পাঠানোর বিষয়ে যে শঙ্কা তৈরি হয়েছিল, তা সামাল দিতে পেরেছে বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ও সৌদিয়া এয়ারলাইন্স। প্রি-হজ ফ্লাইটের সমাপ্তি হয়েছে ৬ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার। এদিন সাউদিয়া এয়ারলাইন্সের সর্বশেষ হজ ফ্লাইটটি ধর্ম মন্ত্রণালয়ের  সচিব   মো.  আব্দুল   জলিলসহ বাংলাদেশি হজযাত্রীদের নিয়ে সন্ধ্যায় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছেড়ে যায়।

হজ অফিস সূত্র জানায়, চলতি বছর ১ লাখ ১ হাজার ৭৫৮ জন বাংলাদেশির হজ পালনের বিষয়ে রাজকীয় সৌদি সরকারের সঙ্গে চুক্তি হয়। এর মধ্যে ১ লাখ ১ হাজার ৪ জন বাংলাদেশির নামে ভিসা ইস্যু করে ঢাকাস্থ সৌদি দূতাবাস। পুলিশ ভেরিফিকেশন শেষে নৈতিবাচক  প্রতিবেদন, হজযাত্রীর মৃত্যুজনিত সমস্যাসহ নানা কারণে ৭৫৪ জনের নামে সৌদি দূতাবাস ভিসা ইস্যু করেনি। ভিসাপ্রাপ্তদের মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনার ৪০১ জন বাংলাদেশি হজযাত্রী নিয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের হজের প্রথম ফ্লাইটটি (বিজি-১০১১) গত ৪ আগস্ট  সকাল ৮টা ৫ মিনিটে সৌদি আরবের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়ে যায়। বিমানের হজ ফ্লাইট শেষ হয়েছে সোমবার। আর সাউদিয়া এয়ারলাইন্সের হজ ফ্লাইট শেষ হয়েছে মঙ্গলবার।

অন্য খবর  পাকিস্তানে নিযুক্ত বাংলাদেশি হাইকমিশনারকে পাল্টা তলব

চলতি বছর মোট ১ লাখ ১ হাজার ৪ জন বাংলাদেশি হজ পালনের উদ্দেশ্যে সৌদি আরব গেছেন। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৫ হাজার ১৮২ জন এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনার ৯৫ হাজার ৮২২ জন গেছেন।

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, হজ শেষে হজের ফিরতি ফ্লাইট আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয়ে চলবে ১৬ অক্টোবর পর্যন্ত। এদিকে, ধর্মবিষয়ক মন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমানসহ ১৪ সদস্যের একটি দল সোমবার রাতে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে ঢাকা ছাড়েন এবং সৌদি আরবের স্থানীয় সময় দুপুর ১টা ২৬ মিনিটে জেদ্দা বাদশাহ আব্দুল আজিজ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেন। ধর্মমন্ত্রী জেদ্দা বিমানবন্দরে নেমে বাংলাদেশ হজ প্লাজায় কিছু সময় অবস্থান করেন। এ সময় হজযাত্রীদের খোঁজ-খবর নেন। এরপর তিনি জেদ্দা হজ টার্মিনাল থেকে পবিত্র নগরী মক্কা আল-মোকাররমায় যান।

মক্কা হজ অফিসের তথ্যানুযায়ী, সোমবার রাত ১২টা পর্যন্ত ৩১ হাজার ৯০১ জনকে চিকিৎসাসেবা দেওয়া হয়। পবিত্র হজ পালন করতে  গিয়ে অসুস্থ হয়ে ২০ বাংলাদেশি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। সোমবার মধ্যরাত পর্যন্ত মোট ২৭ জন হজযাত্রী মারা গেছেন। তাদের মধ্যে ১৯ জন পুরুষ ও ৮জন নারী। এ পর্যন্ত বাংলাদেশি হজযাত্রীদের ৩২৫টি লাগেজ হারানো গেছে। তবে এর মধ্যে ১৬২টি লাগেজ পাওয়া গেছে।

অন্য খবর  হকিতে মালয়েশিয়ার বিপক্ষে হেরেছে বাংলাদেশ

Comments

comments