বিসিবির সঙ্গে আলোচনায় পাইবাস

23
বিসিবির সঙ্গে আলোচনায় পাইবাস

বাংলাদেশের দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের পর হঠাৎ করেই জানা যায়, প্রধান কোচের পদ ছেড়ে দিয়েছেন চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। দক্ষিণ আফ্রিকায় সিরিজ চলাকালীন পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার পর শ্রীলংকায় চলে যান এ কোচ। শ্রীলংকা দলের কোচ হওয়ার জন্যই বাংলাদেশ দলের দায়িত্ব ছেড়ে দিয়েছেন হাথুরু! এর পর থেকেই গুঞ্জন হচ্ছেÑ বাংলাদেশের সামনে শ্রীলংকা সিরিজের অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হতে পারেন খালেদ মাহমুদ সুজন। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) জানায়, তারা বিদেশি কোচের খোঁজে রয়েছে। গতকাল বিসিবির পরিচালক জালাল ইউনুস জানলেন, ইংলিশ বংশোদ্ভূত রিজার্ড পাইবাসের সঙ্গে আজ আলোচনায় বসবে বিসিবি। বোর্ডের সভাপতি ও প্রধান নির্বাহীর স্বাক্ষাৎকারে বসবেন পাইবাস। সেখানে নিজের পরিকল্পনা ও দায়িত্ব নেওয়ার ইচ্ছার কথাগুলো পাইবাস তুলে ধরবেন বলে জানান। গতকাল রাতে ঢাকায় এসেছেন পাইবাস।

হাথুরু দায়িত্ব ছাড়ার পরই হাইপ্রোফাইল কোচ খুঁজছে বিসিবি। জালাল ইউনুস বলেন, আমরা ইতোমধ্যে বেশ কয়েজন হাইপ্রোফাইল কোচের সঙ্গে প্রাথমিক আলোচনা করেছি। এতে ভালোভাবেই সাড়া দিয়েছেন রিচার্ড পাইবাস। তিনি পাকিস্তানের কোচ ছিলেন, দক্ষিণ আফ্রিকার বিভিন্ন প্রদেশের কোচ ছিলেন। কোচ হিসেবে এর আগে আমাদের সঙ্গে তার কাজের অভিজ্ঞতা রয়েছে। দক্ষিণ আফ্রিকার জাতীয় দলের কোচ হিসেবে তিনি বিবেচিত হয়েছিলেন। চলতি বছর ভারত কোচের সংক্ষিপ্ত তালিকায়ও তার নাম ছিল।

অন্য খবর  কাহিলেরও তো দুটি হাত, দুটি পা: মামনুল

জাতীয় দলের কোচের পদের জন্য পছন্দের তালিকায় পাইবাস ছাড়াও বিসিবির পছন্দের তালিকায় রয়েছেন আরও দুজন। কিন্তু তাদের নাম প্রকাশ করতে আগ্রহ প্রকাশ করেননি জালাল ইউনুস। তিনি জানান, তাদের সাক্ষাতের দিনক্ষণ নিশ্চিত না হওয়ায় পর্যন্ত নাম প্রকাশ করা সম্ভব হচ্ছে না। সূত্রে জানা যায়, অন্য দুজন হলেন ফিল সিমন্স ও জিওফ মার্শ।

আগেও বাংলাদেশ দলের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন পাইবাস। স্টুয়ার্ট ল দায়িত্ব ছেড়ে দেওয়ার পর ২০১২ সালের মে মাসে দুই বছরের চুক্তিতে বাংলাদেশ দলের দায়িত্ব নিয়েছিলেন তিনি। পাইবাসের অধীনে ২০১২ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশ প্রথম রাউন্ড থেকেই বাদ পড়েছিল। পরে বিসিবির চুক্তির মেয়াদ না বাড়ানোয় চলে যান পাইবাস। বাংলাদেশ ছাড়াও পাকিস্তান ও দক্ষিণ আফ্রিকার কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করার অভিজ্ঞতা রয়েছে তার। ভারত ক্রিকেট দলের কোচের তালিকায়ও ছিল পাইবাসের নাম। বর্তমানে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেট পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন পাইবাস।

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সামনে ব্যস্ত সূচি। জানুয়ারিতে শ্রীলংকার বিপক্ষে সিরিজ। এর পর ত্রিদেশীয় সিরিজ। জুনে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর। এর পর অস্ট্রেলিয়া সফরে যাবে বাংলাদেশ দল। আগামী বছরের শেষদিকে নিউজিল্যান্ড সফর। এর বাইরেও বাড়তি দ্বিপক্ষীয় সিরিজ আয়োজনের পরিকল্পনা রয়েছে। সব মিলিয়ে এ ব্যস্ত সূচির আগেই কোচ নিয়োগ করতে চায় বিসিবি।

অন্য খবর  ডিসেম্বরে পাকিস্তানের সঙ্গে ক্রিকেট সিরিজের সম্ভাবনা

Comments

comments