বিএনপির নানা অভিযোগ নির্বাচন বানচালের অজুহাত: ওবায়দুল কাদের|

7

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বিএনপি হেরে যাওয়ার ভয়ে নির্বাচন বানচালের বিভিন্ন অজুহাত তুলছে। তাদের নানা অভিযোগকে আমি তারই অংশ (নির্বাচন বানচাল) হিসাবে মনে করি।’ বিএনপির উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘সরকার একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন চায়। ভুয়া অভিযোগ তুলে নির্বাচন বয়কট না করে বিএনপি নির্বাচনে অংশ নিক- সেটাই আমরা আন্তরিকভাবে চাই।’

শুক্রবার (৩০ নভেম্বর) বিকেলে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ের পাশে আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা অফিসে বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি নেতাদের গণহারে গ্রেফতার করে সরকার নির্বাচনের পরিবেশ নষ্ট করছে- মির্জা ফখরুল ইসলামের এমন অভিযোগের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘যাদের পল্টনের ঘটনায় আটক করা হয়েছে তারা একেবারে চিহ্নিত সন্ত্রাসী। সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করলে এটা কি কোনও রাজনৈতিক নেতাকর্মীকে গ্রেফতার? তাহলে কি তাদের দলের বেশিরভাগ নেতাকর্মী সন্ত্রাসী? ক্রিমিনাল অফেন্ডারকে গ্রেফতার করতেই হবে।’

ক্ষমতাসীনরা সংঘাতপূর্ণ পরিস্থিতি সৃষ্টি করে দেওয়ার জন্য উসকানি দিচ্ছে এমন অভিযোগের জবাবে তিনি বলেন, ‘এ পর্যন্ত কোথাও কোনও সংঘাত হয়েছে? কোথায় আমরা আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছি? হাওয়ায় একটি কথা তো ছেড়ে দিলে হবে না? আমি বিএনপিকে বলবো তথ্য প্রমাণসহ বলুন, কোথায় আমরা আচরণবিধি ভঙ করেছি। কোথায় আমরা নিয়ম লঙ্ঘন করছি। শুধু বিএনপিই নির্বাচনের পরিবেশ দেখতে পাচ্ছে না। পরিবেশটা নষ্ট করার সূচনা তাদের হাত দিয়ে শুরু হয়েছে।’

অন্য খবর  প্রধানমন্ত্রীর বিমানে ত্রুটি: সাত কর্মকর্তা গ্রেপ্তার

বিএনপি শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে থাকবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমরা চাই প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক, প্রতিযোগিতাপূর্ণ একটা নির্বাচন হোক। বিএনপি আর যাই হোক তারা একটি বড় দল। একটা বড় দল নির্বাচন থেকে সরে যাক, আমরা সেটা চাই না। আমরা তাদের নির্বাচনে চাই। আমরাও চাই অংশগ্রহণমূলক, গ্রহণযোগ্য, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন, সেখানে বিএনপি অংশগ্রহণ করুক। গতবারের মতো ভুয়া অভিযোগ দিয়ে নির্বাচন বয়কট করুক, এটা আমরা চাই না।’

আওয়ামী লীগ এবারের নির্বাচনে ৩০ আসনও পাবে না বিএনপির এক নেতার বক্তব্যের জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘এই সংখ্যাতত্ত্বটা বিএনপি’ই বলে। ২০০৮ সালের নির্বাচনের আগে বলেছিল। তারা আমাদের ৩০টি আসন দেবে, এ রকম ঘোষণা বারবার দিয়েছে। কিন্তু নির্বাচনে দেখা গেল আমরা সেখানে দুই-তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলাম। সেখানে বিএনপি মাত্র ২৯টি আসন জয়লাভ করতে পেরেছে। এ রকম কথা বিএনপি বলেই।’

সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের জাতীয় নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো-চেয়ারম্যান এইচ টি ইমামও বক্তব্য দেন। এর আগে জাতীয় নির্বাচন পরিচালনা উপ-কমিটির আহ্বায়ক ও সদস্যসচিবদের মধ্যে বৈঠক হয়। বৈঠকে উপ-কমিটির নেতাদের মধ্যে মসিউর রহমান, আব্দুর রাজ্জাক, দীপু মণি, হাছান মাহমুদ, আফজাল হোসেন, দেলোয়ার হোসেন, আব্দুস সবুর, শাম্মী আহম্মেদ, সাবের হোসেন চৌধুরীসহ বিপ্লব বড়ুয়া, এস এম কামাল হোসেন, আনোয়ার হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অন্য খবর  নটর ডেম থেকে কদমতলী উড়াল সড়ক হবে: ওবায়দুল কাদের

Comments

comments