বদলে দিলেন পুরো মাথাটিকেই

বিশ্বে প্রথমবারের মতো একটি সম্পূর্ণ মাথা প্রতিস্থাওইন সম্ভব হয়েছে। বলা যায় এটি চিকিৎসা বিজ্ঞানের একটি অনন্য ঘটনা। যুগান্তকারী এই ঘটনার জন্ম দিয়েছেন ইতালির শল্য চিকিৎসক সের্গিও কানাভেরো। তিনি দাবি করেছেন, বিশ্ব প্রথমবারের মতো সফলভাবে একজনের মাথা অন্য একটি শরীরে প্রতিস্থাপন করতে সক্ষম হয়েছেন তিনি।

কানাভেরো দাবি করে আসছিলেন, এক মানুষের শরীরে অন্য মানুষের মাথা প্রতিস্থাপন সম্ভব। যদিও প্রাথমিক পর্যায়ে তার এই মতকে গুরুত্ব দেয়রি কেউ। বিশেষ করে পশ্চিমা দেশগুলো তাকে এ বিষয়ে পরীক্ষা নীরিক্ষা করার জন্য কোন সুযোগ দিতে চায়নি। এজন্য অবশ্য নৈতিক কারণের দোহায় দেয় তারা। তবে, এক্ষেত্রে এগিয়ে আসে চীন। অবশেষে চীনের এক গবেষণাগারেই সফলভাবে মাথা প্রতিস্থাপন করতে সক্ষম হয়েছেন।

শুক্রবার রাতে কানাভেরো মাথা প্রতিস্থাপনে সফলতার কথা ঘোষণা করেন। একটি মৃত শরীরে জীবিত একজনের মাথা প্রতিস্থাপন করতে গিয়ে স্পাইনাল কড থেকে শুরু করে স্নায়ু এবং রক্ততন্তুগুলো সফলভাবে জুড়ে দিতে সক্ষম হয়েছেন বলে দাবি করেছেন তিনি।

চিনের হারবিন মেডিক্যাল ইউনিভার্সিটিতে এই পরীক্ষামূলক প্রতিস্থাপন সম্পন্ন হয়েছে। অস্ত্রোপচারে ১৮ ঘণ্টা সময় লেগেছে। চীনা চিকিৎসক রেন শিওয়াপিং কানাভেরোর সহযোগী হিসেবে ছিলেন। ইতোপূর্বে বছরখানেক আগে শিয়াওপিং সফলভাবে হনুমানের শরীরে মাথা প্রতিস্থাপন করেছিলেন।

অন্য খবর  স্বাধীনতা দিয়ে গেছেন বঙ্গবন্ধু, সোনার বাংলা গড়ছেন জননেত্রী শেখ হাসিনাঃ দোহার-নবাবগঞ্জে সালমান এফ রহমান

Comments

comments