পুলিশের ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ: নুরুল ইসলাম বাবুল

306

যমুনা গ্রুপের কর্ণধার বিশিষ্ট শিল্পপতি নুরুল ইসলাম বাবুল বলেছেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দোহার-নবাবগঞ্জে পুলিশের ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ। পুলিশের ভয়ে নেতাকর্মীরা নির্বাচনী প্রচারণায় নামতে পারছে না, রাতে বাড়িতে ঘুমাতে পারছে না, পোস্টার লাগাতে পারছে না, লিফলেট বিলি করতে পারছে না। এটা কোন সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ নয়।

নবাবগঞ্জ প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন। ঢাকা-১ আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছেন নুরুল ইসলাম বাবুলের সহধর্মিনী বর্তমান এমপি এডভোকেট সালমা ইসলাম।

তিনি উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, শুনতেছি ভোটের দিন ব্যালটবাক্স নাকি আগে থেকেই ভরে রাখবে আর পরে শুধু ডিক্লারেশন দিবে। আমি বিষয়গুলো পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও নির্বাচন কমিশনারকে জানিয়েছি দেখি তারা কি ব্যবস্থা গ্রহণ করেন।

তিনি বলেন, আমার স্ত্রী জয়ী হবে কি হবে না সেটা পরের বিষয়। কিন্তু আমি সুষ্ঠু নির্বাচন চাই। সুষ্ঠু ভোটের মাধ্যমে জনপ্রিয়তা প্রমাণ করুন। দোহার-নবাবগঞ্জের মানুষ শান্তিপ্রিয়। ভোটকে কেন্দ্র করে এখানের শান্তি যেন কেউ নষ্ট করতে না পারে সেদিকে খেয়াল রাখবেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা রয়েছে সুষ্ঠু নির্বাচন করার বিষয়ে।

অন্য খবর  নবাবগঞ্জে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু

এই আসনে আওয়ামী লীগ ও মহাজোট মনোনীত প্রার্থী বিশিষ্ট শিল্পপতি সালমান এফ রহমান (নৌকা), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত প্রার্থী মোঃ কামাল হোসেন মিয়া (হাতপাখা), স্বতন্ত্র প্রার্থী এ্যাভোকেট সালমা ইসলাম (মটরগাড়ী) বিপ্লবী ওয়ারর্কাস পার্টীর সেকান্দার (কোদাল), বিকল্পধারার জালাল উদ্দিন (কুলা) ও জাকের পার্টীর মোঃ সামসুদ্দিন আহম্মেদ (গোলাপ ফুল) প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন। শেষ মূর্হুতে আদালতের রায়ে আটকে যায় এ আসনের বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী খোন্দকার আবু আশফাকের প্রার্থীতা। তিনি প্রার্থীতার বৈধতা ফিরে পেতে উচ্চ আদালতে আপিল করেছেন বলে জানা গেছে।

ইতোমধ্যে আওয়ামী লীগসহ স্বতন্ত্র প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রচারণা জমে উঠেছে। নির্বাচনের সময় যত ঘনিয়ে আসছে ব্যস্ততা ততই বাড়ছে। দিন রাত ভোটারদের কাছে ছুটে গিয়ে তাদের মন জয় করতে সভা-সমাবেশ, উঠান বৈঠক করছেন তারা। ভোটাররা মনে করছেন শেষ মূহুর্তে বিএনপির প্রার্থী খোন্দকার আশফাকের মনোনয়ন আদালত থেকে ফিরে পেলে লড়াই হবে ত্রিমুখি। আর বাতিল হলে এই আসনের দুই হেভিওয়েট প্রার্থী বেক্সিমকো গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান মহজোট প্রার্থী শিল্পপতি সালমান এফ রহমান নৌকা ও যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান নূরুল ইসলাম বাবুলের স্ত্রী এডভোকেট সালমা ইসলামের মটরগাড়ির সাথে লড়াইও হবে জমজমাট।

অন্য খবর  দোহারে জাইকার নারী নির্যাতন প্রতিরোধে প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

এ আসনে ভোটের মাঠে ফ্যাক্টর হয়ে দাড়িয়েছে বিএনপির রিজার্ভ ভোট। বিএনপির প্রার্থী না থাকলে সে বিএনপির ভোট যে প্রার্থী আদায় করতে পারবে তার বিজয় হবে। আর বিএনপির ভোট স্বতন্ত্র প্রার্থী সালমা ইসলাম মটরগাড়িতে আনতে সক্ষম হলে এ আসনে নৌকার বিজয় খুব সহজ হবেনা বলে বলে মন্তব্য করেছেন ভোটাররা।

এই আসনে মোট ভোটার রয়েছে ৪ লাখ ৪০ হাজার ৪০৭ জন। দোহার পৌরসভা সহ ৮টি ইউনিয়ন ও নবাবগঞ্জের ১৪ টি ইউনিয়ন নিয়ে ঢাকা ১ আসন। দোহারে মোট ভোটার রয়েছে ১ লাখ ৭৮ হাজার ৩৪৩ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৮৮ হাজার ১৪৩ জন আর নারী ভোটার রয়েছে ৯০ হাজার ২০০ জন।

নবাবগঞ্জে মোট ভোটার রয়েছে ২ লাখ ৬১ হাজার ৯৪৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১লাখ ২৮ হাজার ৬৫১ জন, আর নারী ভোটার ১ লাখ ৩৩ হাজার ২৯৩ জন এসময় সাংবাদিকদের সঠিক তথ্য তুলে ধরার আহবান জানান তিনি।

Comments

comments