নারিশার জনসাধারনের পাশে থাকতে চাইঃ ঘটু খালাসী

493

নারিশা ইউনিয়নের সাধারন মানুষের সুখে-দুখে সবসময় পাশে থাকতে চাই।  জনমানুষের ভালবাসা বিগত দিনে আমি যেভাবে পেয়েছি তার কিছুটা আমি তাদের মাঝে ফিরিয়ে দিতে চাই। এই জন্য জনতার প্রতিনিধি হিসাবে আমি ইউপি নির্বাচনে অংশ নিব। এবং এই অঞ্চলে জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান এমপির নেতৃত্বে এই অঞ্চলে উন্নয়নের যে কাজ চলছে নারিশা ইউনিয়ন বাসীর পক্ষ হয়ে আমি সেই উন্নয়ন কাজে অংশ হতে চাই। নিউজ৩৯ কে দেয়া এক সংক্ষিপ্ত সাক্ষাৎকারে দোহার উপজেলা যুবলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ আলী ঘটু খালাসী এই কথা বলেন।

দোহার উপজেলা যুবলীগের সাবেক  সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ আলী ঘটু খালাসী ছাত্রজীবন থেকেই আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত। নারিশা ইউনিয়নের স্বনামধন্য খালাসী বাড়ির সন্তান ঘটু খালাসী একসময় করেছেন ছাত্রলীগের রাজনীতি। শিকার হয়েছেন রাজনৈতিক প্রতিহিংসার। এক সময় নির্বাচিত হয়েছিলেন দোহার উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক। কিন্তু পারিবারিক বিভিন্ন কারনে দোহার উপজেলা যুবলীগের দায়িত্ব হস্তান্তর করেন। এর আগে ২০১০ সালের ইউপি নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন ঘটু খালাসী। কিন্তু খুবই অল্প ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হন নারিশা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ডা আবুল কালামের কাছে।   এরপর ২০১৫ সালের নির্বাচনে তিনি অংশ না নিলেও এই বারের নির্বাচনে তিনি চেয়ারম্যান পদের জন্য অংশ নিতে চান। নিউজ৩৯ কে তিনি বলেন, একজন রাজনৈতিক কর্মীর মূল লক্ষ কি? জন মানুষের প্রতিনিধিত্ব করা। জন মানুষের প্রতিনিধিত্বের জন্যই আমি চেয়ারম্যান নির্বাচনে অংশ নিতে চাই। সাধারন মানুষের দারগোড়ায় ইউনিয়ন পরিষদের সেবা পৌছে দিতে চাই আর তারা যেন সহজেই ইউনিয়ন পরিষদের কাছে পৌছাইতে পারে সেই ব্যাপারে আমি কাজ করতে চাই।

অন্য খবর  নবাবগঞ্জে দুই জনকে কুপিয়ে হত্যা

দলীয় মনোনয়নের ব্যাপারে তিনি বলেন, স্থানীয় সরকার নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন বড় ব্যাপার না। বড় ব্যাপার হচ্ছে জন মানুষ কাকে চায়। জনমানুষ প্রতি দিনই আমাকে নির্বাচন করতে উৎসাহ দিয়ে যাচ্ছে। এখন তাদের কথা ভেবেই ও নারিশা ইউনিয়নের প্রান্তিক মানুষের কথা ভেবেই আমি নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি। জয়-পরাজয় আল্লাহর হাতে। বাকিটা তিনিই দেখবেন।

Comments

comments